আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকেঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় ভুয়া পরীক্ষার্থী সেজে পিইসি পরীক্ষা দেয়ার অপরাধে ৫ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

রোববার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে জেলার হাতীবান্ধা এসএস সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের পিইসি পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে তাদের বহিষ্কার করেন কেন্দ্র সচিব রেজাউল করিম প্রধান জুয়েল।

প্রধান শিক্ষক দাবিদার হাবিবুর রহমান হাবিবকে ইউএনও সামিউল আমিন আটক করলেও পরে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। হাবিবুর রহমান হাবিব বাড়াইপাড়া গ্রামের নাজমুল হুদার পুত্র বলে জানা গেছে।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল আমিন জানান, জাহেদা খাতুন নামে একজন মহিলা নিজেকে বাড়াইপাড়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক বলে দাবী করে অভিযোগ করেন, তার মাদ্রাসার নাম ব্যবহার করে হাবিবুর রহমান হাবিব ৭ জন ভুয়া শিক্ষার্থী দিয়ে পিইসি পরীক্ষা দিচ্ছে। ওই ৭ জনের ৩ জন স্থানীয় শাহ গরিবুল্লাহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও ৪ জন হাতীবান্ধা সিনিয়র আলিম মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

পরে কেন্দ্র পরিদর্শন করে ওই ৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২ জন অনুপস্থিত ও ৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। এ ঘটনায় সোহেল রানা, মাইদুল ইসলাম, মাসুদ রানা, কুহিলী খাতুন, মুন্নি আক্তার নামে ৫ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেন কেন্দ্র সচিব রেজাউল করিম প্রধান জুয়েল।

ওই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক দাবীদার হাবিবুর রহমান হাবিবকে আটক করে পুলিশে দেয় ইউএনও সামিউল আমিন। পরে তার মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সোলায়মান আলীকে তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দিয়ে পুরো ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য