জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি, দিনাজপুরের বার্ষিক সাধারন সভা অনুষ্ঠিতদিনাজপুর সংবাদাতাঃ বাংলাদেশ জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি, দিনাজপুরের বার্ষিক সাধারন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল ১১টায় গাওসুল আযম বিএনএসবি আই হসপিটাল ভবনে এ বার্ষিক সাধারন সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভার শুরুতে বিগত বার্ষিক সাধারন সভার সিদ্ধান্তসমূহ পাঠ করেন জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি দিনাজপুরের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ মোঃ জনাব আলী। পাঠের পর তা সকলে অনুমোদন দেন।

এরপরে সমিতি ও হাসপাতালের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সাধারন সম্পাদক ডাঃ চৌধুরী মোসাদ্দেকুল ইজদানী। সমিতির সাধারন সম্পাদক ডাঃ চৌধুরী মোসাদ্দেকুল ইজদানী তার বক্তব্যে তুলে ধরেন, হাসপাতালের চলমান কার্যক্রম, কর্মকৌশল সহ ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা।

তিনি জানান, হাসপাতালে ভবিষতে বিশেষায়িত চিকিৎসার জন্য আরো সাব-স্পেসিয়ালটি ইউনিট যেমন গ্লুকোমা, রেটিনা, কর্ণিয়া, অকুলো প্লাষ্টি, আই ব্যাংকিং ইত্যাদি চালু করা। এসব ইউনিটগুলো চালু করার জন্য গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও হাসপাতালের যৌথ তহবিলে ১৭কোটি ৩৭ লাখ টাকা ব্যায়ে হাসপাতালের উত্তর পার্শে একটি ৬তলা ভবন নির্মাাণ, যন্ত্রপাতি ও আসবাবপত্র ক্রয় করা হবে। ইতিমধ্যে এ প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে আগামী এক বছরের মধ্যে পূর্নাঙ্গ গ্লুকোমা, রেটিনা ও কর্ণিয়া ইউনিট চালু করা সম্ভব হবে।

এ ছাড়াও গবেষনা ও মনিটরিং সেল গঠন করা, প্রশিক্ষান বিভাগ চালুকরন, আই টি সেকশন শক্তিশালীকরন। আপনাদের সহযোগিতায় ভবিষ্যতে হাসপাতালটিকে টার্শীয়ারী লেভেলে উন্নীত করতে পারবো ইনশা-আল্লাহ।

এরপর সমিতি ও হাসপাতালের বিগত তিন বছরের নিরীক্ষাকৃত বার্ষিক হিসাব বিবরনী ও চলতি অর্থবছরের বাজেট তুলে ধরেন জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি দিনাজপুরের কোষাধ্যক্ষ মোঃ লুৎফর রহমান।

উপস্থিত সদস্যগনের মধ্যে থেকে আলোচনায় পরামর্শসহ গঠনমুলক বক্তব্য রাখেন সফিকুল হক ছুটু, প্রফেসর এম এ জব্বার, এড. ওয়াহেদ আলী, শেখ নাসিম আলী, মোকাররম হোসেন, ফজলে রাব্বী খান, শামসুল আলম, মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।

সাধারন সভায় সমিতির সহ-সাধারন সম্পাদক ডাঃ আইএফএম শহীদুল ইসলাম খান এর উপস্থাপনায় সভাপতির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম ।

জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম বলেন, জ্ঞানকে বিকশিত করে চোখ। এ প্রতিষ্ঠানটি আরও ভাল চলে। আপনাদের উপস্থিতি প্রমান করে সবাই চান এ প্রতিষ্ঠানটি ভাল চলুক। আমরা সবাইকে নিয়ে এবং সবার সহযোগিতা নিয়ে এ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম বেগবান করতে চায়। সংগঠনের সংবিধান অনুযায়ী প্রতি বছরের মে মাসে সাধারন সভা করবো।

এ ছাড়াও সমিতির সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য