স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে আবারো কারাগারে ব্যারিস্টার মইনুলমানহানির মামলায় রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের শারীরিক অবস্থা ভালো রয়েছেন। তবে তিনি ক্রোনিক রোগে ভুগছেন। শনিবার সকাল নয়টায় কারাগার থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে এ তথ্য জানান মেডিকেল বোর্ড।

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশে শনিবার সকাল নয়টায় কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে পাঁচ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। এতে রক্ত, ইসিজিসহ এক্সরে, ইউরিন পরীক্ষা করা হয়। পরে সেখান থেকে সকাল সাড়ে দশটায় আবারো তাকে কারাগারে নেয়া হয়।

স্বাস্থ্য পরীক্ষা প্রসঙ্গে গঠিত মেডিকেল বোর্ড এর প্রধান এবং রমেক হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক দেবেন্দ্র নাথ সরকার বলেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের শারীরিক অবস্থা ভালো আছে। তিনি ক্রোনিক রোগে ভুগছেন।

এদিকে রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার আমজাদ হোসেন জানান, রোববারের মধ্যে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাইকোর্ট থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়। শনিবার রমেক হাসপাতালে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়। চিকিৎসকরা তার শারীরিক অবস্থা ভালো রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে কারাগারে তাকে আবারো নেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একাত্তর টিভির রাতের টক-শো একাত্তর জার্নালে দৈনিক আমাদের নতুন সময় এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে বিদ্রুপ করে অশালীন মন্তব্য করে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন।

এ ঘটনায় ২২ অক্টোবর রংপুরে তার বিরুদ্ধে একটি দশ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন এক নারী অধিকারকর্মী। ওই দিনই তাকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। পরে ৩ নভেম্বর ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ঢাকা থেকে রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। ৪ নভেম্বর রংপুরের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য