দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ ধান ক্ষেত থেকে নুরুজ্জামান সরকার (পুষি) নামে এক ব্যাক্তির মস্তক বিহীন লাশ উদ্ধার করেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার শালখুরিয়া ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামের পার্শ্ববর্তী ধান ক্ষেত থেকে ওই লাশটি উদ্ধার করা হয়। সে একই জেলার বিরামপুর উপজেলার মাহালি পাড়ার নঈমুদ্দিন মাষ্টারের পুত্র।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে ঐ গ্রামের এক ব্যাক্তি মাঠে ঘাস কাটতে গিয়ে লাশটি পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করলে তাঁর চিৎকারে আশপাশের লোকজন সেখানে জমায়েত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।

পুষির পারিবারিক সূত্রে জানা যায় পুষি গত বুধবার বিকেলে নবাবগঞ্জ উপজেলার শালখুরিয়া ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামের কাঠ ব্যবসায়ী রফিকুলের নিকট পাওনা টাকা নিতে গিয়ে সে নিখোঁজ হয়।

তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি রংপুরের পীরগঞ্জ এলাকা থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়। নবাবগঞ্জ থানা পুলিশের উদ্ধারকৃত লাশ পরিবারের লোকজন দেখে তাকে শনাক্ত করে।

নবাবগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত কুমার সরকার জানান, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে মাগুরা গ্রামের আফজাল হোসেনের পুত্র রফিকুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য