ট্রাম্পের বর্ণবাদী বিজ্ঞাপন বর্জন মার্কিন নেটওয়ার্কগুলোরযুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনের একদিন আগে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী শিবিরের একটি বিজ্ঞাপন প্রত্যাহার করেছে এনবিসি, ফক্স নিউজ ও ফেইসবুক।

সোমবার এই নেটওয়ার্কগুলো বিজ্ঞাপনটি প্রত্যাহার করার কথা জানায়, সমালোচকরা যেটিকে ‘বর্ণবাদী’ হিসেবে অভিহিত করেছেন বলে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

গত সপ্তাহে অনলাইনে ছাড়া ৩০ সেকেন্ডের বিজ্ঞাপনটি ট্রাম্পের ২০২০ সালের পুনর্নির্বাচন প্রচারণা শিবির তৈরি করিয়েছে। এতে আদালত কক্ষে ২০১৪ সালে মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আসা এক অবৈধ অভিবাসীকে দেখানো হয়েছে যে দুজন পুলিশ কর্মকর্তাকে খুন করেছে। মেক্সিকো হয়ে লাতিন অভিবাসীরা যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্তের দিকে এগিয়ে আসছে, বিজ্ঞাপনটিতে এমন দৃশ্যের পাশাপাশি ওই বিষয়টি দেখানো হয়েছে।

সমালোচকরা এই বিজ্ঞাপনটিকে জাতিগত বিভেদ সৃষ্টিকারী অভিহিত করে এর নিন্দা করেছেন। এসব সমালোচকদের মধ্য ট্রাম্পের নিজ দল রিপাবালিকান পার্টির সদস্যরাও রয়েছেন।

বিজ্ঞাপনটিকে ‘বর্ণবাদী’ আখ্যায়িত করে সিএনএন এটি প্রচার করতেই রাজি হয়নি। সোমবার এনবিসি বিজ্ঞাপনটিকে ‘অসংবেদনশীল’ অখ্যায়িত করে এটি আর না দেখানোর কথা জানিয়েছে।

যে ব্রডকাস্টারকে বারবার নিজের প্রিয় চ্যানেল বলে উল্লেখ করেছেন ট্রাম্প, সেই ফক্স নিউজ চ্যানেলও বিজ্ঞাপনটি আর সম্প্রচার করবে না বলে জানিয়েছে।

অর্থের বিনিময়ে এই বিজ্ঞাপনের প্রচার আর অনুমোদন করবে না বলে জানিয়েছে ফেইসবুক ইনকর্পোরেট; তবে ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা বিজ্ঞাপনটি শেয়ার ও নিজেদের পেইজে রাখতে পারবেন বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন। এ নির্বাচনেই যুক্তরাষ্ট্রের আইন পরিষদ কংগ্রেসের নিয়ন্ত্রণ রিপাবলিকান না ডেমোক্রেটদের হাতে যাবে তা নির্ধারিত হবে।

সিনেটের ১শ’টি আসনের মধ্যে ভোট হবে ৩৫টিতে। আর হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস এর সব কয়টি, অর্থাৎ ৪৩৫টি আসনেই ভোট হবে। পাশাপাশি ৫০টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ৩৬টির গভর্নর এবং যুক্তরাষ্ট্রের তিনটি অঞ্চলের গভর্নর নির্বাচনে ভোট হবে। এছাড়াও, অনেক নগরীর মেয়র এবং স্থানীয় কর্মকর্তা নির্বাচন করা হবে।

এবারের মধ্যবর্তী নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি গত ৫০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ হতে পারে, এমন ইঙ্গিত পাওয়ার কথা জানিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য