কুড়িগ্রামের উলিপুরে সরকারি কাজে বাঁধা প্রদানের অভিযোগে আওয়ামীলীগের সাবেক মহিলা এমপি পুত্রের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে ঢুকে কর্মকর্তাকে মারধর, আসবাবপত্র ভাংচুর ও প্রাননাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগে ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার বাদী হয়ে শনিবার (০৩ নভেম্বর) রাতে উলিপুর থানায় মামলা করেন।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, শনিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির অফিসে সাবেক এমপি পুত্র সাজেদুল ইসলাম পুবেল (৩৮) ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজারের কক্ষে ঢুকে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রত্যাশী গ্রাহকগনের কয়েকটি আবেদনের রশিদ নিয়ে ওই কক্ষে অবস্থানরত ওয়্যারিং পরিদর্শক অরুপ কান্তি দে এর হাতে দেন এবং তাৎক্ষনিক ভাবে তার সাথে অফিসের বাহিরে সমীক্ষা করার জন্য যেতে বলেন।

এ সময় ওই ওয়্যারিং পরিদর্শক অফিসের কাজ শেষ করে যেতে চাইলে সাজেদুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে অতর্কিত ভাবে তাকে লাথি ও এলোপাথারী ঘুষি মেরে আহত করেন এবং ওই কক্ষের বাহিরে টেনে হিছড়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারী তাকে বাঁধা দিলে সে অফিসের আসবাবপত্র ভাংচুর করে ওই পরিদর্শককে প্রাননাশের হুমকি দিয়ে চলে যান।

অফিসের কর্মকর্তারা অভিযোগ করেন, এমপি পুত্র সাজেদুল ইসলাম পুবেল প্রায় সময় দালালি কাজ নিয়ে অফিসে আসেন এবং অনৈতিক ভাবে চাপ দিয়ে দ্রুত কাজ করে দেয়ার জন্য হুমকি দিয়ে আসছিলেন। মারধর ও ভাংচুরের ঘটনায় ডিজিএম আবুল হাসান বাদী হয়ে সাজেদুল ইসলাম পুবেলের বিরুদ্ধে শনিবার (০৩ নভেম্বর) রাতে উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করেন (মামলা নং-০৬)।

মামলার বাদী ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আবুল হাসান বলেন, সাজেদুল ইসলাম পুবেল প্রায় সময় বিদ্যুৎসংযোগ প্রত্যাশী বিভিন্ন শ্রেণির গ্রাহকগনের নিকট থেকে নিয়মবহির্ভূতভাবে টাকা নিয়ে কাজ করে দেয়ার জন্য অফিসে আসেন এবং স্টাফদের সাথে খারাপ আচরন করেন। কাজ দ্রুত শেষ করে দেয়ার জন্য চাপপ্রয়োগ করাসহ প্রাননাশের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে সরকারি কাজে বাঁধা সৃষ্টি করে আসছেন।

একই ভাবে শনিবার দুপুরে তিনি অফিসে এসে নিয়মবহির্ভূতভাবে কাজের জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। তার কথা শুনতে দেরি হওয়ায় অফিসের ভিতরেই ওয়্যারিং পরিদর্শকে মারপিট ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে বীরদর্পে চলে যান। তার এহেন কাজের জন্য আমরা আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, সরকারি কাজে বাধাঁ প্রদানের অভিযোগে পুবেলের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য