জেল হত্যা দিবসে সাংস্কৃতিক আয়োজনের মধ্য দিয়ে জনসভা করেছে আওয়ামী সরিকদল ওয়াকার্স পার্টিমাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁও: গতকাল ৩ নভেম্বর জেল হত্যা দিবসে বাংলাদেশ আ’লীগের উদ্যোগে সারাদেশে নানা কর্মসুচি পালন করে শোকাবহ দিনটি কাটালেও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ঠাকুরগাওয়ের রানীশংকৈল ডিগ্রী কলেজ মাঠে জেলা ওয়ার্কাস পার্টি আয়োজিত জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

এইদিনে জনসভা করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে জেলা আ’লীগের নেতৃবৃন্দ। ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসিও।

স্থানীয় এলাকাবাসি জানান, শোকাবহ দিনে আমরা এ জনসভাকে ঘৃনার চোঁখে দেখছি। আমরা এই দিনে জনসভা আশা করিনি। শুধু তাই নয় শোকাবহ দিনে অনুষ্ঠিত হয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আলী আসলাম জুয়েল জানান, আমি ও আমার সংগঠনের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা জানাই। এই দিনে জনসভা করা তাদের উচিত হয়নি।

ঠাকুরগাঁও-৩০১ সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটা জানান, আমরা আজ এই দিনটিকে জাতীয় চার নেতাকে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করেছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ আ’লীগের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন নানা কর্মসুচি পালন করেছে। আর ওয়ার্কাস পার্টি আমাদের সরিকদল হয়েও এমন সাংস্কৃতিক আয়োজনের মধ্য দিয়ে জনসভার আয়োজন করেছে তা আমরা ঘৃনার চোঁখে দেখছি। আমরা এটা কখনো আশা করিনি।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ সাদেক কুরাইশী জানান, আমি ও আমার দলের প্রক্ষ থেকে তাদের এমন আয়োজনকে নিন্দা জানাই। ওয়ার্কাসপার্টি আ’লীগের দলে থেকেও এই দিনটিতে জনসভা করা মোটেও ঠিক করেনি। তারা অন্য কোন দিনে জনসভা করতে পারতো। রাশেদ খান মেনন সাহেব একজন মন্ত্রী হয়ে এমন কাজ করবে তা মোটেও গ্রহন যোগ্য নয়।

উল্লেখ্য, ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির পিতার ঘাতকরা ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, এএইচএম কামারুজ্জামান ও ক্যাপ্টেন মনসুর আলীকে নির্মমভাবে হত্যা করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য