দিনাজপুর ফুলবাড়ীতে প্রতিবন্ধিদের সেচ্ছায় শিক্ষাদানষ্টাফ রিপোর্টারঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ব্যাক্তিগত উদ্যোগে নিজ জমিতে স্কুল প্রতিষ্ঠা করে প্রতিবন্ধি শিশুদের সেচ্ছায় (বিনামূল্যে) শিক্ষাদান করছেন, উপজেলার দলদলিয়া গ্রামের আজিজুল ইসলাম নামে এক ব্যাক্তিসহ কয়েকজন সেচ্ছাসেবী শিক্ষক।

উপজেলা বেতদিঘী ইউনিয়নের দলদলিয়া গ্রামের মজিবর রহমানে ছেলে আজিজুল ইসলাম তার নিজেস্ব্য ২০ শতক জমির উপর ”দলদলিয়া প্রতিবন্ধি স্কুল” নামে এই প্রতিবন্ধি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। বিদ্যালয়টিতে গেয়ে দেখা যায়, সেখানে টিনসেডের ৫টি ক্লাসরুম একটি বিশ্রামাগর ও এটি শিক্ষক বসার কক্ষ রয়েছে।

স্কুলটির প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল ইসলাম বলেন, গত ২০১৫ সালে তিনি এই স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করে সেচ্ছায় প্রতিবন্ধিদের শিক্ষা প্রদান করছেন। তিনি বলেন এই বিদ্যালয়টিতে ৮জন শিক্ষাক রয়েছে তারাও সেচ্ছায় শিক্ষাদান করে থাকেন। এছাড়া এই স্কুলটিতে ২জন গাড়ী চালক ও একজন অফিস পিওন রয়েছে। আজিজুল ইসলাম বলেন এই বিদ্যালয়টির ব্যায়ভার তিনি নিজে বহন করেন।

বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক বিদুৎ পাল বলেন তিনি সংসারের অনান্য কাজ করে জিবিকা নির্বাহ করেন, এবং স্কুলটির প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল ইসলামের অনুরোধে এই বিদ্যালয়টিতে দির্ঘ সময় ধরে সেচ্ছায় শিক্ষাদান করে আসছেন। তিনি বলেন কেবলমাত্র প্রতিবন্ধি শিশুরা যাতেকরে পিতা-মাতার বোঝা না হয়ে আলোর মুখ দেখতে পায় এই উদ্দেশ্যে তারা এই শ্রম দিচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, তার সাথে একই ভাবে ফাতেমা খাতুন,হাসিয়ারা খাতুনসহ সকল শিক্ষক সেচ্ছায় এই শিক্ষাদান করে আসছেন। প্রধান শিক্ষক বিদুৎপাল বলেন বর্তমানে এই স্কুলটিতে ১১৯ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল ইসলাম বলেন ফুলবাড়ী উপজেলার বেতদিঘী, কাজিহাল, আলাদিপুর, দৌলতপুর ইউনিয়ন ও পার্শবর্তি বিরামপুর উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে প্রতিবন্ধি শিশুরা শিক্ষা নিতে আসে, সেই শিক্ষার্থীদের আসা-যাওয়া করার জন্য বিদ্যালয়টির নিজেস্ব্য ভ্যান গাড়ী রয়েছে, তবে আসা-যাওয়ার খরছ শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা বহন করে।

আজিজুল ইসলাম বলেন সরকার যদি বিদ্যালয়টির দিকে নজর দেয়, বা সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয়, তাহলে তিনি প্রতিবন্ধিদের প্রাথমিক শিক্ষা থেকে মাধ্যমিক শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টি করতে পারবেন। এজন্য তিনি সরকারের কর্তা ব্যাক্তিদের দৃষ্টি কামনা করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য