হাবিপ্রবি ও মাৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মধ্যে সমঝোতা স্বাক্ষরদিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) এবং বাংলাদেশ মাৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই)-এর মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

দিনাজপুর হাবিপ্রবির গণসংযোগ বিভাগের সহকারী পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম জানান, মঙ্গলবার বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিআইপি কনফারেন্স কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সমঝোতায় হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় পক্ষে স্বাক্ষর করেন বিশ^বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. সফিউল আলম ও বাংলাদেশ মাৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট-এর পক্ষে উক্ত প্রতিষ্ঠানের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ।

এ সমঝোতা স্বাক্ষরের ফলে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যৌথ গবেষণা, হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামসহ নানা শিক্ষামূলক কর্মসূচি পরিচালিত হবে। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও দায়িত্বপ্রাপ্ত ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. বিধান চন্দ্র হালদার। হাবিপ্রবি’র মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোছা. নাহিদ আক্তার-এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ^বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. সফিউল আলম ও বাংলাদেশ মাৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট, ময়মনসিংহ-এর মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন ফিসারিজ রায়োলজি অ্যান্ড জেনেটিক্স বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এ কে এম রুহুল আমিন, মাৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট এর স্বাদু পানি কেন্দ্রের চীফ-সায়েন্টিফিক অফিসার ড. এনামুল হক, সৈয়দপুর মৎস্য গবেষণা কেন্দ্রের সিনিয়র সায়েন্টিফিক অফিসার খন্দকার রাশিদুল হাসান ও মৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষাথী রকিবুল আলম প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও দায়িত্বপ্রাপ্ত ভাইস-চ্যান্সেলর বলেন ক্রমবর্ধমান জনগোষ্ঠিকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য মৎস্যচাষ বৃদ্ধির কোন বিকল্প নেই। আমরা বর্তমানে মৎস্য উৎপাদনে বিশে^ চতুর্থ অবস্থানে রয়েছি; এ কৃতিত্ব মৎস্য চাষী ও মৎস্য গবেষকদের।

উল্লেখ্য, উক্ত অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, মৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষাথীরা অংশগ্রহণ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য