11 21 18

বুধবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

Home - দিনাজপুর - ফুলবাড়ীতে প্রতিবন্ধি শিশুদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

ফুলবাড়ীতে প্রতিবন্ধি শিশুদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

ফুলবাড়ীতে প্রতিবন্ধি শিশুদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদানষ্টাফ রিপোর্টারঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে আজ সোমবার ফুলবাড়ী হাই কেয়ার স্কুলের উদ্যোগে ও ফুলবাড়ী হাই কেয়ার স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা আমেরিকা প্রবাসী প্রকৌশলী মোশাররফ হোসেন বাবুর পৃষ্ঠ পোষকতায়, হাই কেয়ার স্কুল প্রাঙ্গনে, দিন ব্যাপী বাক ও শ্রবন প্রতিবন্দি শিশুদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

App DinajpurNews Gif

চিকিৎসা প্রদান করেন, বাংলাদেশ হাইকেয়ার শিক্ষক প্রশিক্ষন প্রকল্পের অধ্যক্ষ হাই কেয়ার বিশেষঞ্জ বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম ও হাই কেয়ার হেয়ারিং সেন্টার-ঢাকা এর চিকিৎসক অডিও মেট্রিশিয়ান ডাঃ ফারহানা কবীর এর নেতৃত্বে চার সদস্য বিশিষ্ট চিকিৎসক দল।

এসময় অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফুলবাড়ী হাই কেয়ার স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী মোশাররফ হোসেন বাবু, হাই কেয়ার স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ মোছাঃ মরিয়ম বেগম, হাই কেয়ার স্কুল পরিচালনা কমিটির সদস্য ইউপি চেয়ারম্যান উপাধক্ষ্য শাহ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস,ফুলবাড়ী দুর্নীতি প্রতিরোধ কামাটর সভাপতি নাজিম উদ্দিন মন্ডল, ফুলবাড়ী এনজিও ফোরামের সভাপতি এমএ কাইয়ুম, হাই কেয়ার স্কুল পরিচালনা কমিটির কোষাধক্ষ্য সাংবাদিক প্রভাষক সাদেকুল ইসলাম, পরিচালনা কমিটির সদস্য হাছানুজ্জামান লাবলু ও হাইকেয়ার স্কুলের প্রধান শিক্ষক স্ববনম মোস্তারীসহ হাইকেয়ার স্কুলের শিক্ষকগণ।

সকাল ১০ টা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক বাক ও শ্রবন প্রতিবন্ধি শিশুদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

হাই কেয়ার স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী মোশাররফ হোসেন বাবু বলেন, তিনি প্রবাস থেকে দেখেছেন, বিদাশে প্রতিবন্দিরা রাষ্ট্রের বড়বড় দায়িত্বে রয়েছেন, কিন্তু আমাদের দেশে প্রতিবন্দিরা তেমন কোন সুযোগ পায়না, অথচ প্রতিবন্দিদের সুযোগ সৃষ্টি করলে তারাও সাভাবিক স্কুলে লেখাপাড়া করে ভাল কিছু করতে পারবে। এই লক্ষ নিয়ে তিনি গত ২০০৯ সালে ফুলবাড়ীতে হাই কেয়ার স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করা হয়।

ফুলবাড়ী হাই কেয়ার স্কুলের প্রধান শিক্ষক স্ববনম মোস্তারী বলেন, ফুলবাড়ী হাই কেয়ার স্কুল থেকে প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহন করে এখন প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী সাভাবিক স্কুলে লেখা পড়া করছে, তাদের মধ্যে অনেকে ভাল ফলাফল করেছে, এমনকি এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে। এখন এই স্কুলটিতে ৩০জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য