কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ কাহারোলে দীর্ঘ দিন ধরে এসিল্যান্ড না থাকায় অন্তহীন দূর্ভোগের স্বীকার হচ্ছে জনসাধারণ । দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভুমি) কর্মকর্তা ও কাননগো পদ দুটি দীর্ঘ দিন ধরে শুন্য অবস্থায় পড়ে থাকার ফলে সাধারণ জনগন কাঙ্খিত সরকারী সেবা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

কাহারোল উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের জনসাধারণ উপজেলা সদরে অবস্থিত উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভুমি) অফিসটি। আর এই অফিসে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে জনসাধারণ বুকে অনেক আশা আকাংখা নিয়ে প্রতিনিয়ত ভুমির নামজারী, খাজনা, মিসকেস,ডিসিআর সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন কাজ-কর্মের জন্য উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) অফিসটিতে আসতে হয়ে থাকে।

কিন্তু অত্র উপজেলায় দীর্ঘ ধরে এসিল্যান্ড ও কাননগো পদ দুটিতে কর্মকর্তা না থাকায় কাজ কর্মের বেঘাত সৃষ্টি হওয়ায় কাজে আসা সাধারণ মানুষজন অতি ভরাক্রান্ত মন নিয়ে বাড়িতে ফিরে যেতে দেখা যাচ্ছে। কাহারোল ভুমি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) অফিসে গিয়ে দেখা গেছে,অত্র কাহারোল উপজেলা ভুমি অফিসে সহকারী কমিশনার (ভুমি) গোলাম মোহাম্মদ শাহ নেওয়াজ পদোন্নতি পেয়ে ২০১৩ সালে ৫ সেপ্টেম্বর অন্যত্রে বদলি হয়ে চলে যাওয়ার পর থেকে উক্ত পদটিতে অদ্যাবদি অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করে আসছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসারগনেরা।

আর কাননগো পদটিও শুন্য অবস্থায় পড়ে রয়েছে বেশ কয়েক বছর ধরে। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) কর্মকর্তা না থাকায় যেমন জনসাধারণ সরকারী সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, তেমনি প্রতি বছর সরকার কাঙ্খিত রাজস্ব আদায়ের ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ার আশংকাও রয়েছে।

বর্তমান কাহারোল নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদ ভারপ্রাপ্ত সহকারী কমিশনার (ভুমি)হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করে আসছেন এবং তিনি উপজেলা প্রশাসনিক কাজ-কর্মের ফাঁকে-ফাঁকে ভুমি অফিসের কাজ-কর্ম করে আসতে দেখা গেছে। ভারপ্রাপ্ত সহকারী কমিশনার(ভূমি) মোঃ নাসিম আহমেদ গতকাল সোমবার ২টার দিকে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের সাথে মিটিংয়ে থাকার কারনে এ ব্যাপারে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য