দিনাজপুরে শান্তি সুন্দর কল্যাণের প্রচেষ্টায় সম্প্র্রীতির বন্ধন উৎসব অনুষ্ঠিতদিনাজপুর সংবাদাতাঃ “বাঙালির ঘরে যত ভাই বোন, এক হউক”-এই শ্লোগানকে সামনে রেখে অসাম্প্রদায়ীক চেতনাকে প্রতিষ্ঠিত করতে ১৬ অক্টোবর মঙ্গলবার দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সম্প্রীতি বন্ধন আহবায়ক কমিটি দিনাজপুরের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো শান্তি সুন্দর কল্যাণের প্রচেষ্টায় সম্প্রীতির রাখি বন্ধন উৎসব।

সম্প্রীতির বন্ধন কমিটির আহবায়ক বিশিষ্ট নারী নেত্রী কানিজ রহমান এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ড. মাসুদুল হক। অপার বাংলা’র শ্যামল সেনের বার্তা পাঠ করেন সিরাজাম মনিরা।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুগ্ম আহবায়ক ড. মারুফা বেগম, মীর আরা পারভীন, যুগ্ম সদস্য সচিব তারিকুজ্জামান তারেক, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও কমিটির অন্যতম সদস্য স্বরূপ বকসী বাচ্চু, রহমতুল্লাহ, উত্তম কুমার রায়, শামীমা পপি, বিশিস্ট নারী নেত্রী রাজিয়া সরকার প্রমুখ।

প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে নজরুল পরিষদের বিশিষ্ট সাহিত্যিক পিয্যুষ ভট্টচার্য বলেন, ১৬ অক্টোবর সম্প্রীতি বন্ধন উৎসবের প্রাসঙ্গিকতা নিহিত আছে।

রাখি একটি প্রতিক মাত্র, সম্প্রীতির প্রতিক জাতিতে, ধর্মের সঙ্গে ধর্মের ভাষার সঙ্গে ভাষার বিরোধ বাধিয়ে দেশের জাতীয়তাবাদের মূল মন্ত্রকে ধ্বংস করার বিরুদ্ধে ১৬ অক্টোবর আমাদের কাছে এক অনন্য হাতিয়ার।

যখনি ধর্ম নিরপেক্ষতা, জাতীয়তাবোধ বাধাগ্রস্থ হবে ঠিক তখনি ১৬ অক্টেবরের প্রাসঙ্গিকতা সমাজের মধ্যে নতুন করে জাগ্রত করাই সময়ের দাবী। অশিক্ষা-কুশিক্ষার অন্ধকারে সমাজটাকে গ্রাস করার মাধ্যমে সর্বনাশ করেছে দেশের সাম্প্রদায়ীক শক্তি।

সেদিন মুক্ত চিন্তার অবকাশ, সাম্প্রদায়ীকতা ও সামরাজ্যবাদী শক্তি মাথানত করতে যেভাবে বাধ্য হয়েছিল আজ আমরাও সেভাবে রাখি বন্ধন উৎসবের মধ্য দিয়ে সকল মানুষকে ঐক্যবন্ধ সংগ্রামে সামিল করতে পারব।

সভা শেষে মরহুম মির্জা আনোয়ারুল ইসলাম তানু’র সহ-ধর্মিনী অসুস্থ্য কোহিনুর বেগমের হাতে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও কমিটির অন্যতম সদস্য স্বরূপ বকসী বাচ্চু রাখি পরিয়ে রাখি বন্ধন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

এরপর সবাই একে অপরকে রাখি পড়িয়ে সম্প্রীতির বন্ধনের উৎসবে মেতে উঠে। সভা শেষে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের প্রধন প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য