11 22 18

বৃহস্পতিবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

Home - রংপুর বিভাগ - শক্ত অবস্থানে জাপা, প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে নেই আ.লীগ, কোন্দলে বিএনপি

শক্ত অবস্থানে জাপা, প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে নেই আ.লীগ, কোন্দলে বিএনপি

শক্ত অবস্থানে জাপা, প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে নেই আআজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের (কালীগঞ্জ ও আদিতমারী) উপজেলা নিয়ে গঠিত লালমনিরহাট-২ আসন। এ দুই উপজেলার বাতাসে এখন ভেসে বেড়াচ্ছে নির্বাচনী গন্ধ। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টির মধ্যে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। রাজনীতির মাঠে কেবল নির্বাচনী ডামাডোল। সাধারণ মানুষকেও আগাম রাজনীতির পুরো হিসাব কষতে দেখা যাচ্ছে।

App DinajpurNews Gif

এ অঞ্চলের জনপ্রিয় খ্যাত জাতীয় পার্টি কোন জোটে গিয়ে নির্বাচন করবে সেটাও কিন্তু দেখার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে রাজনীতির মাঠে। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটারদের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটেনি ফলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে মানুষের মধ্যে আলাদা একটা উৎফুল্লতা দেখা যাচ্ছে। সরকারি দল আওয়ামী লীগ ও মাঠের বিরোধী দল বিএনপি ও সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির কর্মকাণ্ডের নানা বিষয় উঠে আসছে মানুষের কথপোকথনে। ভোটাররা অপেক্ষা করছেন, পছন্দের মার্কা থাকা নৌকা, ধানের শীষ কিংবা লাঙ্গল প্রতীকে সিল মেরে নিজেদের সুষ্ঠু চেতনার বাস্তবায়ন ঘটাতে।

লালমনিরহাট-২ (আদিতমারী-কালীগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলামের নাম শোনা যাচ্ছে। এ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে নুরুজ্জামান আহম্মেদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হন। পরে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে দলীয় কার্যক্রমে আগের মতো কম দেখা গিলেও প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে নেই দলটি।

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ রাজনৈতিক ও সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান। স্বাধীনতার পর থেকে তাদের পরিবারকে ঘিরে ওই দুই উপজেলায় আওয়ামী লীগের রাজনীতি পরিচালিত হয়ে আসছে। তার পিতা করিম উদ্দিন আহমেদ প্রাক্তন এমএলএ ছিলেন। তার ছোট ভাই মাহবুবুজ্জামান আহমেদ কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। যার কারণে তাদের পরিবার রাজনৈতিকভাবে একটি ঐতিহ্যবাহী পরিবার বলে জনশ্রুতি রয়েছে।
প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ তার পিতার হাত ধরে ছাত্রজীবন থেকেই সক্রিয়ভাবে রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। কালীগঞ্জ উপজেলার শিক্ষা উন্নয়নে ওই পরিবারটির ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। ফলে আওয়ামী লীগের প্রার্থীতা মনোনয়নে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ এগিয়ে রয়েছেন।

এ আসনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে সাবেক এমপি সালেহ উদ্দিন আহম্মেদ হেলাল, সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু ও কালীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলমের নাম শোনা গেলেও ভোটের অবস্থানে বিএনপির অবস্থান আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির চেয়ে অনেক নিচে।

এ আসনে জাতীয় পার্টির একক প্রার্থী রোকন উদ্দিন বাবুল প্রতিনিয়ত গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এ আসনটি বরাবরেই জাতীয় পার্টির দখলে ছিল। ১৯৮৬ সাল থেকে এ আসনে প্রতিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা এমপি নির্বাচিত হয়ে আসছেন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে এ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মজিবুর রহমান অংশ না নেয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ এমপি নির্বাচিত হন। এ আসনে জাতীয় পার্টির পাশাপাশি ব্যক্তি হিসেবে রোকন উদ্দিন বাবুল ক্লিন ইমেজের হওয়ায় তিনি ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ এমপি বলেন, যে যত কথাই বলুক লালমনিরহাটের (আদিতমারী ও কালীগঞ্জ) উপজেলা আওয়ামী লীগের দুর্গ। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশের ন্যায় লালমনিরহাটে আমার হাত ধরে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। আগামী দিনে এ জেলার মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের সঙ্গে থাকবেন।

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক রোকন উদ্দিন বাবুল বলেন, জাতীয় পার্টি আগের চেয়ে এ জেলায় অনেক শক্তিশালী।লালমনিরহাট-২ (কালীগঞ্জ ও আদিতমারী) থেকে এখন পর্যন্ত জাতীয় পার্টির প্রার্থী পর পর ৬ বার এমপি নির্বাচিত হয়েছে। গত নির্বাচনে জাতীয় পার্টি অংশ না নেয়ায় বিনা ভোটে আওয়ামী লীগের এমপি হয়েছে মাত্র।

লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সহসভাপতি সালেহ উদ্দিন আহম্মেদ হেলাল বলেন, এ আসনে বিএনপি আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। আগামী নির্বাচনে লোকজন বিএনপিকে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের দুঃশাসনের জবাব দেবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য