দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ভারতীয় ব্যবসায়ীদের কোন্দল ও সরকারি ছুটি থাকায় হিলি স্থলবন্দর দিয়ে গত দু’দিন পণ্য আমদানি-রফতানি বন্ধ রেখেছে। এ নিয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো বন্দর দিয়ে সব ধরনের বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তবে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে যাত্রী পারাপার ও বন্দরের ভেতরের সব কার্যক্রম চালু রয়েছে।

দিনাজপুর হাকিমপুর উপজেলার হিলি কাস্টমস সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সচিব শাহিনুর ইসলাম শাহিন মঙ্গলবার দুপুরে জানান, ভারতে পাথর ব্যবসায়ীদের কোন্দলের কারণে ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে বন্দর দিয়ে পাথর আমদানি বন্ধ রয়েছে।

ফলে ব্যবসায়ীদের লোকসান হওয়ায় ৩০ সেপ্টেম্বর রোববার থেকে পাথরসহ সব পণ্য রফতানির অনুরোধ জানিয়ে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের চিঠি দেয়া হয়েছিল। ভারতীয় ব্যবসায়ীদের নিকট চিঠি দেয়ার পরেও তারা পাথর বাংলাদেশে প্রেরণ কার্যক্রম চালু করেনি। ভারতের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সৃষ্ট গোলযোগ নিরসন না হওয়ায় সোমবার থেকে সব পণ্য আমদানি-রফতানি বন্ধ করে দেয়।

মঙ্গলবার ভারতে সরকারি ছুটি থাকায় বন্দরে বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। তবে হিলি স্থলবন্দরের ভেতরে মালামাল খালাসসহ অন্যান্য কার্যক্রম চলছে। কবে নাগাদ পাথরসহ অন্যান্য পণ্য ভারত থেকে বাংলাদেশে আমদানী কার্যক্রম চালু হবে সে বিষয়ে সঠিক কিছু ভারতীয় ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের নিশ্চিত করতে পারেনি। ফলে অনিশ্চয়তার মধ্যে হিলি স্থলবন্দরের পণ্য আমদানী কার্যক্রম পড়ে রয়েছে।

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট ওসি আব্দুস সবুর জানান, বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকলেও যাত্রী পারাপার কার্যক্রম চালু রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য