দিনাজপুরের বিরলে ৪টি তাজা ককটেলসহ ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি মন্টু আটকসুবল রায়, বিরল দিনাজপুরঃ বিরলে ৪টি ককটেল সদৃশ বস্তুসহ আটক বিএনপি নেতাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনায় ১৭ জন নামীয়সহ অজ্ঞাতনামা ১৫/১৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

থানার অফিসার ইনচার্জ এ টি এম গোলাম রসুল জানান, বিরল উপজেলার ফরকক্কাবাদ ইউপি’র চককাঞ্চনে দিনাজপুর-বিরল (স্থলবন্দর) সড়ক সংলগ্ন মিনি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট এর পিছনে বুধবার দুপুর আড়াইটায় ২৫-৩০ জন ব্যক্তি শহরগ্রাম ইউপি’র পাঁচশালা গ্রামের মৃত হাসিম উদ্দীনের পুত্র ও ইউপি বিএনপি’র সভাপতি সালেহ উর রহমান মন্টুসহ নাশকতার প্রস্তুতিমূলক গোপন বৈঠক করার সময় সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স অভিযান চালায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাকি সবাই পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও সালেহ উর রহমান মন্টুকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। এ সময় তাঁর হাতে থাকা একটি ব্যাগ থেকে ছোট বড় ৪টি লাল রংয়ের ককটেল সদৃশ বস্তু উদ্ধার করেছেন বলে থানার অফিসার ইনচার্জ দাবী করেছেন।

তিনি আরো জানান, পরে মন্টুকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাঁর সঙ্গে থাকা লোকজনকে আটকের চেষ্টা চালানো হয়। রাতেই থানার এসআই আব্দুল কাদের বাদী হয়ে থানায় ৩৯ নং একটি মামলা দায়ের করে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সালেহ উর রহমান মন্টুকে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিজ্ঞ বিচারক তাঁর জামিন না মঞ্জুর করে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এজাহারে উল্লেখিত আসামীদের মধ্যে উপজেলার ধর্মপুর ইউপি’র ধর্মজৈন গ্রামের আব্দুল আজিজের পুত্র সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নুর ইসলাম, আজিমপুর ইউপি’র রুনিয়া (কবিরাজপাড়া) গ্রামের মোজাহার আলীর পুত্র আজিরুল ইসলাম, ফরক্কাবাদ ইউপি’র চককাঞ্চন গ্রামের শাহের আলীর পুত্র আক্কাস আলী, ধামইর ইউপি’র পিপল্লা গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দীনের পুত্র মমিনুর ইসলাম (দলিল লেখক), তার ছোট ভাই নুর ইসলাম, গোবিন্দপুর গ্রামের আমির খামারু ও তার পুত্র এনামুল হক, মাটিয়ান গ্রামের নজিশাহর গ্রামের পুত্র তোজাম্মেল হক, শহরগ্রাম ইউপি’র পাঁচশালা গ্রামের আটককৃত মন্টুর ছোট ভাই কামরুজ্জামান কামু, সাইয়ীম, আবু সাঈদ, গগনপুর গ্রামের মৃত শওকত আলীর পুত্র আব্দুর রশীদ, শহরগ্রামের মৃত কছিমউদ্দীনের পুত্র সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হাসান আলী ও তাঁর পুত্র সাজ্জাদ হোসেন এবং ওকড়া গ্রামের মৃত হবিবর রহমানের পুত্র হাফেজ মোঃ আব্দুর রশিদ, আলহাজ্ব মনছুর আলীর পুত্র আজমুল হকসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১৫/১৬ জনকে বিশেষ ক্ষমতা ও বিষ্ফোরক আইনে মামলাটি দায়ের হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য