নবাবগঞ্জে রোপা আমনের মাঠে সবুজের সমারোহদিনাজপুর সংবাদাতাঃ চলতি রোপা আমন মৌসুমে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলায় রোপা আমন ফসলের মাঠে মাঠে সবুজের সমারোহে পরিণত হয়েছে। মাঠগুলি যেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক লিলা ভুমি হয়ে উঠেছে।

যে দিকে চোখ যায় সেদিকে সবুজ আর সবুজ। এরই মাঝে কৃষি বিভাগের পরামর্শে ডেড পার্চিং(টি) ও লাইভ পার্চিং বসানো হয়েছে। ওই সব পার্চিংয়ে বিভিন্ন পাখি বসায় ওই সৌন্দর্যকে আরো বিকশিত করে তুলেছে।

কৃষকেরা জানান এই এলাকায় অনাবৃষ্টি কিংবা বন্যার তেমন কোন প্রভাব না থাকায় তারা যথা সময়ে রোপা আমন চাষ করতে পেরেছে। ফলে চাষাবাদের বর্তমান অবস্থা বেশ ভাল দেখা যাচ্ছে এবং তারা ভাল ফলন পাবারও আশা করছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আবুরেজা মোঃ আসাদুজ্জামান জানান, এই উপজেলায় কৃষকেরা রোপা আমন চাষে তেমন কোন বাধার সম্মূখিন হয় নাই। অনাবৃষ্টি বা বন্যা কি তা কৃষকেরা বলতে গেলে বুঝতেই পারে নাই।

যথা সময়ে তারা চাষাবাদ করতে পেরেছে। কৃষি বিভাগের পরামর্শে কৃষকেরা ফসলের সঠিক পরিচর্যা করায় আপাতত মাঠের ফসলে কোন সমস্যা দেখা যায়নি।

তিনি বলেন এলাকার ফসলের মাঠে কিট-পতঙ্গ ও বালাই নিরোধের লক্ষ্যে কৃষকদের কিট নাশক ব্যবহার না করে ডেড পার্চিং ও লাইভ পার্চিংয়ের উপকারিতা ও কার্যকারিতা বিষয়ে সচেতন করা সহ ডেড পার্চিং ও লাইভ পার্চিং করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন এবারে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১১৪ হেক্টর জমিতে আমন চাষাবাদ কম হয়েছে। আমন চাষাবাদ কম হওয়া ওই জমি গুলোতে সবজি সহ বিভিন্ন ফসল চাষাবাদ হয়েছে।

চলতি মৌসুমে উপজেলায় রোপা আমন চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ২১ হাজার ৬৬৪ হেক্টর জমি নির্ধারণ করা হলেও চাষাবাদ হয়েছে ২১ হাজার ৫০০ হেক্টর জমি।

এরমধ্যে হাইব্রিড জাত ১ হাজার হেক্টর এবং উফশী জাত ২০ হাজার ৫০০ হেক্টর জমি রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য