11 22 18

বৃহস্পতিবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

Home - দিনাজপুর - কাহারোলে ড্রেন গুলো ময়লা আবর্জনায় ভরাট হওয়ায় জনদূর্ভোগ

কাহারোলে ড্রেন গুলো ময়লা আবর্জনায় ভরাট হওয়ায় জনদূর্ভোগ

কাহারোলে ড্রেন গুলো ময়লা আবর্জনায় ভরাট হওয়ায় জনদূর্ভোগকাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ কাহারোলে হাট-বাজারগুলোর পানি নিস্কাশনের ড্রেন ময়লা আবর্জনায় ভরাট হলেও এসব পরিস্কারের কোন উদ্যোগ নেই কর্তৃপক্ষের।

App DinajpurNews Gif

দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলা সদরের কাহারোল হাট-বাজার, ডাবোর ইউনিয়নের জয়নন্দ হাট ও রসুলপুর ইউনিয়নের বলেয়া বাজার, সুন্দরপুর ইউনিয়নের ১৩ মাইল গড়েয়া হাট-বাজার সহ উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন হাট-বাজারগুলোর পানি নিস্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মাণ করা হলেও কর্তৃপক্ষের উদাসিনতার কারণে ড্রেন গুলোতে ময়লা আবর্জনায় ভরাট হয়ে যাওয়ায় পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় সাধারণ জনগণ ও হাট-বাজারে আসা ক্রেতা-বিক্রেতাদের দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত এবং ময়লা আবর্জনার পানি চলাচলের রাস্তায় জমে থাকায়।

গত কয়েকদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের হাট-বাজার গুলো সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, পানি নিস্কাশনের জন্য নির্মাণ করা ড্রেন গুলো ভরাট ও ড্রেনের উপরে অস্থায়ী ভাবে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন ধরনের দোকান-পাট।

এসব দোকান-পাট গড়ে উঠায় জনসাধারণ ও হাট-বাজারে আসা ক্রেতাদের রাস্তা দিয়ে চলাচলের চরম অসুবিধায় সম্মুখীনে পড়তে হয়। এসব দেখার পরে মনে হয় ড্রেন গুলো পরিস্কারের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের কোন মাথা ব্যাথা নেই। সরকার প্রতি বছর কাহারোল উপজেলার হাট-বাজার গুলো থেকে মোটা অংকের রাজস্ব আদায় করে থাকলেও পানি নিস্কাশনের ড্রেন গুলো ময়লা আবর্জনায় ভরাট হয়ে একাকার হয়ে গেছে।

ড্রেন গুলো ভরাট থাকার কারণে বর্ষার মৌসুমে ড্রেন গুলোর উপর দিয়ে বৃষ্টির পানি চলাচল করতে দেখা গেছে। এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয় হতে জানা যায়, হাট-বাজারের পানি নিস্কাশনের জন্য নির্মাণকৃত ড্রেন গুলো সহ হাট-বাজার পরিস্কার করার কথা ইজারাদারের। কিন্তু তিনি আদোও ড্রেন গুলো পয়-পরিস্কারের কাজ না করার ফলে দিন, দিন পানি নিস্কাশনের ড্রেনে ময়লা আবর্জনায় ভরাট হয়ে থাকতে দেখা যায়।

আর হাট-বাজার উন্নয়নের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাট-বাজার উন্নয়ন ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। প্রতি বছর ড্রেন নির্মাণ, ড্রেন পরিস্কার ও হাট-বাজার উন্নয়ন করার জন্য মোটা অংকের প্রকল্প গ্রহণ করে থাকেন ইউপি চেয়ারম্যানেরা। প্রকল্প গ্রহণ করলেও তদারকির অভাবে হাট-বাজার গুলোর উন্নয়ন কাজ তেমন চোখে পড়ে না। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদ এর সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে তিনি জানান, ড্রেন পয়-পরিস্কার করার দায়িত্ব স্ব-স্ব হাট-বাজার ইজারাদারদের।

আমাদের নিকট হাট-বাজার ইজারাদারের ৫% অর্থ জামানত হিসাবে জমা থাকে ড্রেন পরিস্কার ও হাট-বাজার পরিস্কারের জন্য। কেউ যদি এ কাজটি করে না থাকে তাহলে আমরা ঐ ৫% অর্থ দিয়ে পরিস্কারের কাজ করে থাকি এবং ড্রেনের উপরে গড়ে উঠা অবৈধ দোকান-পাট গুলো অতি দ্রুত উচ্ছেদ করা হবে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য