লিবিয়ার রাজধানীতে জরুরি অবস্থা জারিলিবিয়ার জাতিসংঘ-সমর্থিত সরকার রাজধানী ত্রিপলি ও এর সংলগ্ন এলাকাগুলোতে জরুরি অবস্থা জারি করেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী সশস্ত্র দলগুলোর মধ্যে টানা কয়েকদিনের সংঘর্ষের পর এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার। সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত বেসামরিক নাগরিকসহ নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩৯ জন। আহত হয়েছেন শতাধিক।

রবিবার এক বিবৃতিতে লিবিয়ার ‘গভর্নমেন্ট অফ ভাইটাল একর্ড’ (জিএনএ) বলেছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে ও জনগণের স্বার্থে, ‘প্রেসিডেন্সিয়াল কাউন্সিল’ জরুরি অবস্থা জারি করছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, বেসামরিক নাগরিক, সরকারি ও বেসরকারি সম্পদ ও গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা বিবেচনায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এক সপ্তাহ আগে প্রতিদ্বন্দ্বী সশস্ত্র দলগুলোর মধ্যে শুরু হওয়া দাঙ্গা ত্রিপলি ও এর সংলগ্ন এলাকাগুলোতে চরম সহিংস রূপ ধারণ করেছে। অবস্থা এতটা বেগতিক পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, শহরের মধ্যে রকেট চালিয়ে হামলা চালানো হচ্ছে। এতে কয়েকজন বেসামরিকও নিহত হয়েছেন।

অনেকে অভিযোগ করেছেন এই সহিংসতা সামলাতে জিএনএ’র যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে। আর এজন্যই সহিংসতা ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেয়ে আরো ভয়ানক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। -আল জাজিরা

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য