অভিবাসীদের সামলাতে ভেনিজুয়েলা সীমান্তে সেনা পাঠাচ্ছে ব্রাজিলব্রাজিল আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ভেনিজুয়েলা সীমান্তে সেনা পাঠাচ্ছে। ভেনিজুয়েলা থেকে সীমান্ত পথে ব্রাজিলে ঢুকতে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমাচ্ছে। এই অভিবাসীদের চাপ সামলাতেই সেনা পাঠাচ্ছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট তেমের।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট মাইকেল তেমের বলেছেন, ভেনিজুয়েলার দুঃখজনক পরিস্থিতি পুরো দক্ষিণ আমেরিকার জন্য সংকট সৃষ্টি করেছে। ভয়াবহ মূল্যস্ফীতি, খাদ্য ও ওষুধ সংকটের কারণে ভেনিজুয়েলার লাখ লাখ মানুষ দেশ ছাড়ছে। সম্প্রতি ব্রাজিলের স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে ভেনিজুয়েলার অভিবাসীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এরপরই প্রেসিডেন্ট তেমের সেনা পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মঙ্গলবার উত্তরের রোরাইমায় প্রদেশে দুই সপ্তাহের জন্য সেনা মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ভেনিজুয়েলার সমস্যা এখন শুধু তাদের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নয় তা এখন পুরো মহাদেশের ভারসাম্যের জন্য হুমকি হয়ে গেছে, বলেন তেমের। তিনি বলেন, সেনারা ব্রাজিলের নাগরিকদের পাশাপাশি ভেনিজুয়েলার অভিবাসীদের নিরাপত্তার দিকটিও দেখবে।

এদিকে পেরু ভেনিজুয়েলা সীমান্তে ৬০ দিনের স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করেছে। সেখানে অভিবাসীদের মাধ্যমে রোগ জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে পেরুর স্বাস্থ্যবিভাগ। চার বছর ধরে অর্থনৈতিক সংকটে ভুগছে ভেনিজুয়েলা। পাঁচজনের মধ্যে ৪ জন মানুষ দরিদ্র সেখানে। দীর্ঘ লাইন ধরে খাবার কিনতে হচ্ছে মানুষকে। ওষুধের অভাবে রোগী মারা যাচ্ছে।

মূল্যস্ফীতি কমানোর জন্য নতুন মুদ্রা চালু করার ঘোষণা দেওয়ার পর পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে ভেনিজুয়েলায়। জাতিসংঘ একে দক্ষিণ আমেরিকার সবচেয়ে বড় অভিবাসী সংকট বলেছে। ভেনিজুয়েলার অভিবাসীদের চাপ সামলাতে হচ্ছে প্রতিবেশী দেশগুলোকে। ভেনিজুয়েলা থেকে বিপুল সংখ্যক মানুষ ইকুয়েডর ও পেরুতে ঢুকতে থাকায় সীমান্তে কড়াকড়ি আরোপ করছে দেশ দু’টি। পেরু ও ইকুয়েডরে ঢুকতে ভেনিজুয়েলার নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়ের পরিবর্তে পাসপোর্ট দেখাতে হচ্ছে।-বিবিসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য