উপসাগর ও হরমুজ প্রণালীতে পূর্ণ নিয়ন্ত্রণের দাবি ইরানেরপারস্য উপসাগর ও তার প্রবেশপথ হরমুজ প্রণালীতে ইরানের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আছে আর সেখানে মার্কিন নৌবাহিনীর কোনও অবস্থান নেই বলে দাবি করেছেন ইরানের রেভ্যুলুশনারি গার্ডের নৌ-বাহিনীর প্রধান জেনারেল আলিরেজা তাঙ্গসিরি। ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা তাসনিমের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ইরানের তেল রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলে উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর তেল রফতানি বন্ধ করে দিতে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে ইরান। এরই মধ্যে দেশটি এমন দাবি করলো। তেলবাহী জাহাজ চলাচলের সুরক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রও উপসাগরে নৌ-বহর পরিচালনা করে আসছে।

তাঙ্গসিরি বলেন, উপসাগর ও এর প্রবেশপথ হরমুজ প্রণালীর ওপর ইরানের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে। প্রণালীটি বন্ধ করে দিলেই উপসাগরে জাহাজ চলাচল বন্ধ হয়ে যাবে। তাকে উদ্ধৃত করে তাসনিমের ইংরেজি সংস্করণে বলা হয়, ‘আমরা পারস্য উপসাগরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারি। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য বহিরাগত দেশের উপস্থিতির কোনও প্রয়োজন নেই।’

গত মে মাসে ইরানের সঙ্গে ২০১৫ সালে করা পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বের হয়ে আসার পর থেকে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা চলে আসছে। তখনই ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। জ্যেষ্ঠ মার্কিন কর্মকর্তারা বলে আসছেন, ইরানের তেল রফতানি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনাই তাদের লক্ষ্য।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লা আলী খামেনি গত মাসে বলেছেন, যদি ইরান তেল রফতানি করতে না তাহলে উপসাগরীয় অঞ্চলের কোনও দেশকে তেল রফতানি করতে না দেওয়ার সিদ্ধান্তকে তিনি সমর্থন করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য