খানসামায় এস এস সি কৃতি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানদিনাজপুর সংবাদাতাঃ বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক মরহুম আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার-এর ১৩তম মৃত্যু বার্ষীকি উপলক্ষে খানসামা উপজেলাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এস.এস.সি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ৩৭ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা, সম্মাননা বৃত্তি প্রদান ও স্মরণ সভার আয়োজন করে আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার স্মৃতি ফাউন্ডেশন।

“রাজা শুধু দেশেই গণ্য,বিদ্বান গণ্য ভুবন জুড়ে” শ্লোগানকে সামনে রেখে রবিবার(২৬ আগস্ট) বিকেলে আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার স্মৃতি ফাউন্ডেশন কর্তৃক খানসামা উপজেলার পাকেরহাট বাজারের ফাউন্ডেশন চত্বরে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাবু জিতেন্দ্রনাথ রায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মরহুম আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার এর প্রিয় ছাত্র ডাঃ মোঃ ফজলুর রহমান,উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা,বিরল,দিনাজপুর।

বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন,মোঃ সাজেদুল হক সাজু,চেয়ারম্যান, ৪নং খামারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন ও গিতাপাঠ করা হয়। পরে আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার এর জীবনী পাঠ করে সবাইকে শোনান বলরাম উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শ্রী বীরেন্দ্রনাথ রায়। অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন জমির উদ্দিন শাহ্ স্কুল ও কলেজের সহকারী অধ্যাপক বাবু জিতেন্দ্রনাথ রায়।

স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেন,আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার আমাদের কাছে অমর,তিনি আমাদের সমাজের জন্য যেসব কর্ম সম্পাদনা করেছেন তার প্রতিফলন উপজেলাবাসী এখনো পাচ্ছে,ভবিষ্যতেও পাবে। তিনি শিক্ষার ক্ষেত্রে খানসামাকে নিয়ে গেছেন অন্যমাত্রায়। তিনি বেঁচে থাকবেন আমাদের মাঝে যুগ যুগ বছর ধরে। অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ বক্তব্য প্রদান করতে গিয়ে এ্যাডভোট রেয়াজুল ইসলাম রাজু বলেন,আব্দুল জব্বার হেড মাস্টার বলতেন, শিক্ষার মাঝে থাকবে কোয়ালিটি এবং কোয়ান্টিটি। এর পর নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ রফিকুল ইসলাম সম্মাননা পত্র দেওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের মঞ্চে আহ্বান জানান।

শিক্ষাকে সবার আগে গুরুত্ব দিয়ে আমাদের সন্তানদের এই খানসামা উপজেলার মত একটা প্রত্যান্ত অঞ্চলেও প্রতিবছর কৃতি শিক্ষার্থীদের আমরা সম্মাননা দিতে পারছি। আগামীতেও এটা বহাল থাকবে বলে বক্তব্যে জানান তিনি।

এর পর কৃতি শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে অনুভূতি ব্যক্ত করার জন্য বক্তব্য রাখেন নিউ পাকেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের এবারের জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রী আয়েশা সিদ্দিকা। সম্মাননা অনুষ্ঠানে আরো স্মৃতিচারণ বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সেপেক্টর অব পুলিশ সিরাজুল ইসলাম, জয়পুরহাট।স্মৃতির চারণ করতে গিয়ে বক্তব্য রাখেন,বীর মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, ডাঃ ফজলুল রহমান, ৪নং খামারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজেদুল হক সাজু। অনুষ্ঠানে মোট ৩৭ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট,সম্মাননা পত্র এবং বৃত্তি প্রদান করেন আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য