গোবিন্দগঞ্জে নানা-নানীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনগাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে নানা-নানীর বিরুদ্ধে নাতীরা সংবাদ সম্মেলন করেছে।

আজ ১৯ আগস্ট (রবিবার) সকাল ১১টায় উপজেলার চাদঁপাড়া নিজ বাসায় মোছা. শাহজীন হুর সুচী উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে লিখিত সংবাদ সম্মেলনে বলেন, মা আলেমাতুন শাহী (রিমিটি) বোয়ালিয়া স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন।

তার বাবার বাড়ি পৌর সভার বোয়ালিয়ায়। তিনি শাহ আলমের কন্যা। গত ২৫-১১-১৬ ইং তারিখে বাবাসহ আমরা দুই ভাই-বোন বাবার কর্মস্থল বগুড়ায় ভাড়া বাসায় থাকার সুযোগে মা রাতে সবার অজান্তে বোয়ালিয়াস্থ বাড়িতে আত্মহত্যা করে।

এদিকে মা আলেমাতুন আত্বহত্যার পর নানী নূরুন্নাহার বেগম বাদী হয়ে আমার বাবা শাজাহান (সরকারি চাকুরিজীবি) কে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

পরবর্তীতে মেডিক্যাল রিপোর্টে এ হত্যাকান্ডের কোনো আলামত এবং বাদী পক্ষের স্বাক্ষী প্রমান দিতে না পারায় থানা থেকে মামলাটি চূড়ান্ত রিপোর্ট প্রদান করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও তারা বলেন, মা’র চাকুরির সুবাদে বাবা নানার বাড়ির পার্শ্বে জমি ক্রয় করে নিজস্ব বাসা করেন এবং সেখানেই মাসহ তারা বসবাস করতেন। একপর্যায়ে নানীর কারনেই মা আত্মহত্যা করেছে।

আত্মহত্যাকে হত্যা মামলা করে ব্যর্থ হয়ে নানা শাহ আলম ও নানী নুরুন্নাহার বেগম এখন বাবার তৈরি বাসায় থাকা মালামাল সহ বাসাটি অবৈধ ভাবে দখল করে নিয়ে আছে।

গত ২২-১১-১৭ সতারিখে বাবাসহ আমরা দুই ভাই-বোন বোয়ালিয়াস্থ বাসায় গেলে নানা-নানীসহ অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জন ভাড়াটিয়া যুবক বাবা ও আমাদেরকে হত্যার উদ্দেশে মারপিট করে বাড়ি থেকে তারিয়ে দিয়ে মালামালসহ বাড়িটি দখল করে নিয়েছে।

এমতাবস্থায় বাবা ও আমরা দুই ভাই-বোন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই উপরোক্ত ঘটনাবলি বিবেচনায় নিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শাহাদৎ হোসেন, আব্দুল হাকিম ও জাহিদুল মন্ডল প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য