বিরামপুরের কৃষক মিজানুরের ষাড়টিই দিনাজপুরের সেরা ষাড়বিরামপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের কেটরা গ্রামের মৃত কিয়ামুদিদ্দন মাস্টারের ছেলে কৃষক মিজানুর রহমানের হলিস্টেন ফ্রিজিয়ান জাতের ষাড়টিই চলতি কোরবানীর ঈদের এখন পর্যন্ত দিনাজপুরের সর্ব সেরা ষাড় হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। ষাড়টির মালিক জানান, বিরামপুর উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ ইদ্রিস আলি ষাড়টি ওজন নির্ধারণ করে ২০ মণ বলে জানিয়েছেন।

মাত্র তিন বছরে এই ষাড়টি মিজানুর রহমানের স্ত্রী সুলতানা পারভীন সর্বদা দেগভান করেছেন বলে জানালেন। শান্ত সভাবের এই ষাড়টিকে খাবার হিসেবে দৈনিক পরিমানমত লিপিয়ার ঘাস, খড়, সরিষা ভাঙ্গা খইল ও দানাদার খাবার খাইয়েছেন।

কোন রাসায়নিক খাবার ও (ভোল্ডার বড়ি) মোটাতাজাকরণ টেবলেট ব্যবহার ছাড়াই ষাড়টির ওজন ২০ মণ হওয়ায় এলাকাবাসি ষাড়টি দেখতে প্রতিদিন মিজানুরের বাড়িতে দলে দলে ছুটে আসছে।

সরেজমিনে গিয়ে ষাড়টিকে দেখতে আসা জনতার একজন সাগাইহাটা গ্রামের আবু সুফিয়ান চৌধুরী ওরফে সুফি চৌধুরী জানান, তিন বছর বয়সের ষাড়টি যে এত বড় হতে পারে বলে, আমি অবাক না হয়ে পারছিনা। আসলেই মিজানুরের স্ত্রীর সঠিক পরিচর্যায় তা সম্ভব হয়েছে।

ষাড়ের মালিক আসছে কোরবানীর ঈদে তাঁর আদরের ৪ দাঁত বয়সের ষাড়টি বাজারে বিক্রির আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। বিস্তারিত জানতে তিনি যোগাযোগ করতে ব্যবসায়ি/ক্রেতাসাধারণকে অনুরোধ জানিয়েছেন। ষাড়টি বিক্রয় হলে সাড়ের মালিক ষাড়টিকে ক্রেতার বাড়িতে নিজেই পৌছে দিয়ে আসবেন বলে জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে বিরামপুর উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ ইদ্রিস আলি জানান, মিজানুর রহমানের হলিস্টিন ফ্রিজিয়ান জাতের সাড়টিই আসছে কোরবানীতে বিরামপুরের সেবা ষাড় । রাসায়নিক পদ্ধতি ছাড়াই যে এত বড় ষাড় পালন করা সম্ভব তা কৃষক মিজানুর সবাইকে দেখিয়ে দিলেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য