আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় মিনা বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া উঠেছে। এ ঘটনার পর থেকে স্বামী মোস্তফা আলীসহ তার পরিবারের লোকজন আত্মগোপনে রয়েছেন।

গতশুক্রবার (১০ আগষ্ট) বেলা ১১টার দিকে পুলিশ ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত মিনা বেগম উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের সজিব বাজার এলাকার মোস্তফা আলীর স্ত্রী। মোস্তফা আলী ওই এলাকার এমাজ আলীর ছেলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মোস্তফা আলীর প্রথম স্ত্রী মায়া বেগম ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী মিনা বেগমের মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো। এজন্য মোস্তফা ও তার প্রথম স্ত্রী মায়া মিনাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে নির্যাতন করতেন।

এ নিয়ে মিনা স্থানীয় মাতব্বর সাবেক ইউপি সদস্য শফিকুল ও স্থানীয় সজিব বাজারের ব্যবসায়ীদের কাছে নালিশ করলে শুক্রবার বৈঠকের দিন ধার্য করেন। নালিশের বিষয়টি জানার পর মোস্তফা ও মায়া আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন।

বৃহস্পতিবার (০৯ আগস্ট) রাতে মিনাকে মারধর করে শ্বাসরোধে হত্যা করে বাড়ির বাইরে ফেলে রেখে মোস্তফা আলীসহ তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায়।

সকালে স্থানীয়রা মিনার মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক হামিদুর রহমান জানান, নিহত গৃহবধূ মিনা বেগম প্রায় দিনই মারপিটের জন্য চিকিৎসা নিতে আসতেন। বৃহস্পতিবার বিকেলেও তিনি চিকিৎসা নিয়েছেন।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা জানান, মৃত্যুর প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানে পুলিশ মাঠে নেমেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য