বীরগঞ্জে কুপিয়ে হত্যা ও খুনিকে পুড়িয়ে হত্যার দুটি ঘটনায় মামলা, এলাকাবাসী আতঙ্কিতভ্যানচালক সুরুজ আলীকে হত্যার অভিযোগে তার বোন তারা বানু ৫ জনের নাম উল্লেখ করে বৃহস্পতিবার রাতে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। অপরদিকে বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ (চৌকিদার) অতুল দেবনাথ অজ্ঞাত নামা ২/৩শ’ লোককে আসামী করে অপর একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

এদিকে গতকাল শুক্রবার রবিউল ইসলামকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে অজ্ঞাতনামা ২/৩শ’ লোককে আসামী করে মামলা দায়ের করায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

নিহত দুজনের লাশ দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্তের পর বৃহস্পতিবার রাতে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। রাতেই পুলিশের উপস্থিতিতে দুজনের লাশ দাফন করা হয়। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, হাজার হাজার লোকের উপস্থিতিতে ক্ষুব্ধ জনতা রবিউলকে পুড়িয়ে মেরে ফেলেছে। বার বার অভিযোগ করার পরও প্রশাসন রবিউলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়ায় বিক্ষুব্ধ জনতা ক্ষুব্ধ হয়েই তাকে মেরে ফেলেছে। এখন পুলিশ নিরীহ লোককে আসামী করে হয়রানি করতে পারে। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি শাকিলা পারভীন জানান, কাউকে হয়রানি করা হবে না। মামলা নিয়ে কেউ যাতে মিথ্যা প্রচারণা চালিয়ে আইনশৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি অথবা বাণিজ্য করতে না পারে, সেজন্য সকলকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

বীরগঞ্জে ভ্যানচালক সুরুজ আলীকে কুপিয়ে গলা কেটে হত্যার অভিযোগে ক্ষব্ধ এলাকাবাসী সন্ত্রাসী রবিউল ইসলামকে পুড়িয়ে মেরে ফেলা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য