সৈয়দপুরে অগ্নিকান্ডে ১৩ পরিবারের সর্বস্ব পুড়ে ছাইমো: জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) থেকেঃ নীলফামারীর সৈয়দপুরের পল্লীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১৩টি পরিবারের সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। মঙ্গলবার (৭ আগষ্ট) দিবাগত রাত ১টার দিকে সংঘটিত এ অগ্নিকান্ডে ২৫টি ঘরসহ ধান, আসবাবপত্র, শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তক, গবাদী পশু, স্বর্নালংকারসহ মোট অর্ধ কোটি টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

এসময় দুই জন গুরুত্বর আহতও হয়েছেন। ফায়ার সার্ভিসের ১টি ইউনিট দীর্ঘ ২ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো এখন খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের পূর্ব বেলপুকুর সুতারপাড়ায় লোকমানের বাড়ি থেকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আগুনের সূত্রপাত হয়ে দ্রুত আশে পাশে ছড়িয়ে পড়ে। এতে প্রতিবেশী ওমর ফারুক, মোকছেদ আলী, বাহাদুর এর বাড়ির বসতঘর, গোয়ালঘর ও রান্নাঘর সহ মোট ২৫টি ঘরে আগুন লাগে।

এতে ঘরের সকল আসবাবপত্র, ৭০ মন ধান, ৬টি বাই সাইকেল, ১০ ভড়ি স্বর্নালংকার, টেলিভিশন, স্কুলের বইপত্র, নগদ ৫ লাখ টাকা ও একটি গাভী সহ প্রায় ৫০ লাখ টাকা মালামাল পুড়ে যায়।

খবর পেয়ে তারাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ১টি ইউনিট ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রায় ২ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন নেভানোর সময় মোকছেদ আলীর ২ ছেলে ওমর ফারুক (২৬) ও বাহাদুর গুরুত্বরভাবে আহত হয়।

তারাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের গ্রুপ লিডার আফজাল হোসেন জানান, মূলত: বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। অগ্নিকান্ডে ১৩টি পরিবারের প্রায় আনুমানিক ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের লোকজন খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছেন। এ পর্যন্ত সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে প্রতিটি পরিবারকে ৩০ কেজি চাল, ১ কেজি তেল, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি চিনি, সাবান ২টি, লুঙ্গি ও শাড়ি ১ টি করে, চিরা ২ কেজি এবং নগদ ৩ হাজার করে টাকা প্রদান করা হয়েছে।

এসব ত্রাণ দেয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: মোখছেদুল মোমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: বজলুর রশীদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো: আজমল হোসেন সরকার, কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: এনামুল হক চৌধুরী।

এদিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বিরোধী দলীয় হুইপ আলহাজ্ব শওকত চৌধুরী মুঠোফোনে কথা হলে জানান, ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। তাদের জন্য আগামীকাল আমার পক্ষ থেকে প্রত্যেক পরিবারকে ২ বান্ডিল ঢেউটিন ও নগদ ৬ হাজার টাকা প্রদান করা হবে।

এছাড়াও ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সৈয়দপুর পৌর আমীর হাফেজ আব্দুল মুনতাকিম ও উপজেলা সেক্রেটারী মাওলানা গাওহার আলী। সংগঠনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর তালিকা তৈরী করা হয়েছে। সে অনুযায়ী সহযোগিতা করা হবে বলে তারা জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য