মানবিক চেতনায় রবীন্দ্র নাথ ছিলেন একজন স্বার্থক পুরুষদিনাজপুর সংবাদাতাঃ “সমুখে শান্তি পারাবার ভাসাও তরণী হে কর্ণধার” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ দিনাজপুর আয়োজিত বিশ্ব কবি রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের ৭৭তম প্রয়ান দিবস উপলক্ষে ২২ শ্রাবণ রাতে শিল্পকলা একাডেমী ষ্টুডিও মিলনায়তনে সম্মেলক গান, আলোচনা সভা, আবৃত্তি ও রবীন্দ্র সঙ্গীতের আসর বসে।

জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি রবিউল আউয়াল খোকার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বক্্সী বাচ্চু। প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন দিনাজপুর সঙ্গীত ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. মারুফা বেগম, বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক ড. মাসুদুল হক।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল মতিন সৈকত, বিশিষ্ট নারী নেত্রী ও পরিষদের সাবেক সভাপতি আজাদী হাই, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও পরিষদের উপদেষ্টা ডাঃ আহাদ আলী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সুলতান কামাল উদ্দীন বাচ্চু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ ঘোষ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু বলেন মানবিক চেতনায় রবীন্দ্র নাথ ছিলেন একজন স্বার্থক পুরুষ। রবীন্দ্র নাথকে বলা হয় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ কবি। আমাদের আগামী প্রজন্মকে রবীন্দ্র চর্চায় সম্পৃক্ত করতে পারলে অবক্ষয়মুক্ত সমাজ গড়া সম্ভব।

তিনি আরও বলেন আগামী ১৬ অক্টোবর অসম্প্রদায়িক সেতু বন্ধনের প্রতীক রাখি বন্ধনের অনুষ্ঠান আমরা পালন করবো কারণ রবীন্দ্র নাথ ঠাকুর ছিলেন অসম্প্রদায়িক একজন নবেল প্রাপ্ত কবি। জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার নিজস্ব শিল্পীরা সম্মেলক গান ও কবিতা আবৃত্তি করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য