কালীগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধে চাচার হাতে ভাতিজার মৃত্যুআজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে চাচার লাঠির আঘাতে কোহিনুর হোসেন (২৯) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন নিহতের বাবা-মা ও ভগ্নিপতি।

শনিবার (৪ আগস্ট) সকাল দশটার দিকে উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের লতাবর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃত কোহিনুর হোসেন ওই গ্রামের তসলিম হোসেনের ছেলে। তিনি ঢাকায় পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানাযায়, কোহিনুরদের বাড়িতে যাওয়ার রাস্তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তার চাচা জোবেদ আলী ও আনছার আলীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার বৈঠক হলেও নিষ্পত্তি হয়নি।

ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরে শনিবার ওই রাস্তার জন্য চাচাদের নিয়ে আলোচনায় বসলে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে জোবেদ ও আনছার আলীদর লাঠির আঘাতে ঘটনাস্থলেই কোহিনুরের মৃত্যু হয়। মারধরের সময় ঠেকাতে গেলে তার বাবা তসলিম হোসেন, মা কুলসুম বেগম ও ভগ্নিপতি জিল্লুর হোসেন গুরুতর আহত হন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে ও মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় ঘাতক জাবেদ আলীকে (৪৫) আটক করে পুলিশ।

আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কালীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মকবুল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য