গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে (এবাএখা) ১’ শ ৩০ টি সমিতির কাছে অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ ৭ কোটি ১০ লাখ টাকা।

জানা গেছে, সরকার পল্লী অঞ্চলের অসহায় মানুষকে স্বাবলম্বি করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প চালু করে।

এরই ধারাবাহিকতায় এ উপজেলার ১৫ টি ইউনিয়নে প্রথম পর্যায়ে ১’ শ ৩০ টি ও দ্বিতীয় পর্যায়ে ১’ শ ১০ টি সমিতি গঠণ করে ১৩ হাজার সদস্য অন্তরভুক্ত করেন।

এদের কাছ থেকে ৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকা সঞ্চয় আদায় করে সমিতির সদস্যদের নিকট পর্যায়ক্রমে সহজ শর্তে ১৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়।

বিতরণকৃত ঋণের অর্থগুলো সঠিকভাবে তদারকির অভাবে দেয়া ঋণের অর্থ ঠিক সময়ে আদায় না হওয়ায় এ উপজেলায় প্রকল্পটির কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।

এতে করে অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ দাড়িয়েছে ৭ কোটি ১০ লাখ টাকা। এ নিয়ে প্রকল্প সমন্বয়কারী সাজেদুর ইসলাম স্বাধীন মিয়ার সাথে কথা হলে তিনি এর সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঋণ খেলাপি ৪৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও প্রকল্প সভাপতি এস এম গোলাম কিবরিয়ার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনাদায়ী ঋণ দ্রুত আদায়ের জন্য তাগাদা দেয়া হয়েছে।

এছাড়া তাদের বেতন-ভাতাদি অনাদায়ী ঋণ যতদিন আদায় হয়নি ততদিন পুরোপুুরি প্রদান করাও বন্ধ রাখা হয়েছে। ঋণ খেলাপিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য