সুইডেনে অমূল্য ঐতিহাসিক রাজকীয় মুকুট ও রত্ন চুরিসুইডেনের একটি প্রধান গির্জায় রক্ষিত দেশটির সবচেয়ে অমূল্য কিছু ঐতিহাসিক মুকুট ও রত্ন চুরি হয়ে গেছে।

চুরি করার পর চোরেরা স্পিডবোট যোগে পালিয়ে গেছে এবং তাদের ধরতে পুলিশ বড় ধরনের তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দুপুরের দিকে রাজধানী স্টকহোমের নিকটবর্তী স্ট্রেইংনাস থেকে সপ্তদশ শতাব্দির এক রাজা ও এক রানির ব্যবহৃত দুটি মুকুট ও একটি রাজদণ্ড নিয়ে গেছে চোরেরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, তারা দুই ব্যক্তিকে গির্জাটি থেকে দৌঁড়ে বের হতে দেখেছেন। পরে তাদের মলারেন হ্রদ দিয়ে স্পিডবোট যোগে চলে যেতে দেখা যায়, তারপর থেকে তাদের আর দেখা যায়নি।

ওই দিন গির্জাটিতে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন চলছিল এবং জনসাধারণের জন্য গির্জাটি উন্মুক্ত ছিল।

ঘটনার পর বড় ধরনের তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে পুলিশ, তবে চলমান মূহুর্তে এ ঘটনায় নির্দিষ্ট কোনো সন্দেহভাজন নেই বলে জানিয়েছে তারা।

পুলিশের মুখপাত্র থুমাস আগনিভিক বলেছেন, “রত্নগুলোর কোনো মূল্যমান নির্ধারণ করা সম্ভব নয়, এগুলো অমূল্য জাতীয় সম্পদ।”

রাজকীয় ওই রত্নগুলো সোনা, বহুমূল্য পাথর ও মুক্তা দিয়ে তৈরি। ১৬১১ সালে সুইডেনের নবম চার্লস ও কিস্টিনা দ্য এডলারের রাজকীয় অ্যান্ত্যেষ্টিক্রিয়ার পর এসব রত্ন গির্জাটির অধীনে এসেছিল।

রত্নগুলো তালাবদ্ধ একটি কাঁচের শোকেসে রাখা ছিল এবং তা অ্যালার্মের সঙ্গে যুক্ত ছিল বলে জানিয়েছেন আগনিভিক। সেগুলো নিতে চোরেরা শোকেসের কাঁচ ভেঙেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই দুঃসাহসিক চুরির সময় কেউ আঘাত না পেলেও গির্জাটির কর্মীরা হতভম্ব হয়ে পড়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য