পলাশবাড়ীতে বজ্রপাতে মারাত্মক ঝলসে কৃষক নিহত, প্রচন্ড গর্জনে এক স্কুল ছাত্রী আহতঃ ইউএনও’র অনুদানআরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে মঙ্গলবার সকালে বজ্রপাতে মারাত্মক ঝলসে গিয়ে কৃষক ফুল মিয়া (৫০) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। বজ্রপাতের আকস্মিক প্রচন্ড গর্জনে আহত হয়েছেন স্কুল ছাত্রী তাসলিমা (১২)। চিকিৎসার জন্য তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহতের পরিবার ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের কেত্তারপাড়া গ্রামের মৃত খয়রাজ্জামানের ছেলে ফুল মিয়া অন্যান্য দিনের ন্যায় পার্শ্ববর্তী গড়েয়ার ব্রিজ এলাকায় ফসলের মাঠে তার জমি চাষ করতেছিল।

অপরদিকে সকাল ১০টার দিকে এসময় ওই গ্রামের রুহুল আমিনের স্কুল পড়ুয়া মেয়ে তাসলিমা পার্শ্ববর্তী একটি স্কুলে যাচ্ছিল। বৃষ্টির সাথে আকস্মিক বজ্রপাতের প্রচন্ড গর্জনে ফুল মিয়া ঝলসে গিয়ে গুরুতর এবং তাসলিমা জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটে পড়ে।

স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। কর্তব্যরত চিকিৎসক এসময় ফুল মিয়াকে মৃত ঘোষনা করেন।

আতঙ্কগ্রস্থ তাসলিমাকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আরিফ হোসেন, মহদীপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম মন্ডল, ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান।

ইউএনওসহ অন্যান্যরা নিহতের বাড়ীতে গিয়ে মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোকাহত পরিবারের প্রতি শান্তনা ও গভীর শোক প্রকাশসহ সমবেদনা জানান। তিনি এসময় মরদেহ সৎকারে পরিবারের স্বজনদের নিকট তাৎক্ষনিক নগদ ১০ হাজার টাকা সরকারি অনুদান প্রদান করেন। কৃষক ফুল মিয়ার বজ্রপাতে আকস্মিক মৃত্যুতে এলাকাবাসির মাঝে গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য