গাজা উপত্যকাগামী ত্রাণবাহী জাহাজ আটকে দিল ইসরাইলগাজা উপত্যকাগামী একটি ত্রাণবাহী জাহাজ আটকে দিয়েছে ইসরাইলের নৌবাহিনী। জাহাজটি গাজা উপত্যকার বাসিন্দাদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে যাচ্ছিল। খবর আল জাজিরার।

খবরে বলা হয়, আওডা নামের জাহাজটিতে ২৩ জন আরোহী ছিল। জাহাজটি স্থানীয় সময় রবিবার দুপুরের দিকে ইসরাইল অবরুদ্ধ উপত্যকায় পৌঁছানোর কথা ছিল। কিন্তু পথিমধ্যে জাহাজটিকে আটকে দেওয়া হয়। সেখান থেকে আওডাকে ইসরাইলের আশদোদ বন্দরে পাঠানো হয়।

উল্লেখ্য, এক যুগ ধরে গাজার ওপর অবরোধ জারি করে রেখেছে ইসরাইল ও মিসর। একারণে সেখানে কোন জাহাজ ত্রাণ পৌঁছাতে পারছে না। এর আগেও বহুবার এমন ক্ষুদে জাহাজ নিয়ে এই অবরোধ ভাঙার চেষ্টা করা হয়েছে। কখনো কখনো এই অবরোধ ভাঙার প্রচেষ্টা প্রাণঘাতী রুপও নিয়েছে।

২০১০ সালে একটি তুর্কি জাহাজ গাজায় প্রবেশের চেষ্টা চালালে জাহাজটিতে হামলা চালায় ইসরাইলী সেনারা। ওই হামলায় প্রাণ হারান ১০ তুর্কি নাগরিক। এছাড়া, ২০১৫ সালে অপর একটি গাজা-গামী জাহাজ আটকে দেওয়া হয়।

কেবলমাত্র ২০০৮ সালে ৪০ জন আরোহী নিয়ে একটি জাহাজ গাজার উপকূলে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছিল। ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তখন জানায়, তারা জাহাজটিকে প্রবেশের অনুমতি দিয়েছিল।

এদিকে, আওডা এক সপ্তাহ আগে ইতালির পালেরমো বন্দর থেকে রওনা দেয়। জাহাজটিতে আরোহী হিসেবে ছিল ১৬টি ভিন্ন দেশের নাগরিক।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা জাহাজটিকে পর্যবেক্ষণে রেখেছিল এবং আন্তর্জাতিক আইন অনুসারেই এটিকে আটকে দেওয়া হয়েছে।

সামরিক বাহিনী আরো জানায়, জাহাজটিতে থাকা সকল মানবিক ত্রাণ গাজায় পৌঁছে দেওয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য