দিনাজপুর সংবাদাতাঃ যৌন নির্যাতনের দায়ে অভিযুক্ত হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক ড. রমজান আলীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। বরখাস্তকৃত ড. রমজান আলী বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমেষ্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক।

এদিকে যৌন নির্যাতনের দায়ে অভিযুক্ত বরখাস্তকৃত সহকারী অধ্যাপক ড. রমজান আলী’র শাস্তি’র দাবীতে সোমবার (৩০ জুলাই) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। অভিযুক্ত শিক্ষক ড. রমজান আলীসহ অন্য অভিযুক্ত শিক্ষকদেরও বিচার বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ফিরিয়ে আনার দাবী র দাবী জানায় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (৩০ জুলই) সকালে ড. রমজান আলীকে সাময়িক বরখাস্ত সংক্রান্ত পত্র প্রদান করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার অধ্যাপক ড.শফিউল আলম।

এর আগে যৌন নির্যাতনের দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে সংশ্øিষ্ট কর্তৃপক্ষকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম বেশ কয়েকবার মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছে।
প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. বলরাম রায় অভিযোগ করেন, গত এক বছরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের উপর যৌন হয়রানীর অভিযোগ ওঠে।

লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটির রিপোর্টে তা প্রমানিতও হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষকদের শাস্তির দাবীতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে মানববন্ধন, অবস্থান কর্মসূচী ও কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে। বর্তমানে একজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে সাময়িক বরখাস্তের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলেও আরো দু’জন রয়েছে ধরাছোঁয়ার বাইরে।

একই অভিযোগ করেছেন ফোরামের সদস্য প্রফেসর ড. এটিএম শফিকুল ইসলাম, প্রফেসর ড. আনিস খান, প্রফেসর ড. সাইফুর রহমান, প্রফেসর ড. নিজামউদ্দিনসহ কয়েকজন শিক্ষার্থী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য