হরিপুরে দূর্নীতি দমন কমিশনের গণশুনানী অনুষ্ঠিতঠাকুরগাঁয়ের হরিপুরে দূর্নীতি প্রতিরোধ ও জনগণের সেবাপ্রাপ্তি নিশ্চিতকরণের লক্ষে উপজেলা প্রশাসন, হরিপুর, ঠাকুরগাঁও এর সার্বিক সহযোগীতায় দূর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয়, দিনাজপুর ও উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, হরিপুর উপজেলা কর্তৃক আয়োজিত রবিবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘গণশুনানী’ এর আয়োজন করা হয়। উক্ত গণশুনানীতে হরিপুর উপজেলার সকল সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, সুশিল সমাজের প্রতিনিধি এবং সর্বস্তরের জনগণ। গণশুনানী প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, দূর্নীতি দমন কমিশনের মাননীয় কমিশনার (তদন্ত) এ.এফ.এম আমিনুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি সেলিম রেজা তালুকদার। আরও উপস্থিত ছিলেন, পরিচালক (প্রতিরোধ ও গণসচেতনতা) মনিরুজ্জামান, বিভাগীয় পরিচালক (রাজশাহী) আব্দুল করিম, হরিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম.জে আরিফ বেগ প্রমূখ। গণশুনানী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, উপপরিচালক, স্থানীয় সরকার ঠাকুরগাঁও ড. এ.কে.এম আজাদুর রহমান।

গণশুনানীতে উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান ও আপত্তি অফিসার নিরঞ্জন কুমার রায়ের বিরুদ্ধে আর্থিক দূর্নীতির বিষয়ে অভিযোগ উপস্থাপন করেন স্থানীয় সেবা প্রার্থীগণ। সেবা প্রার্থী নজরুল ইসলাম বলেন, ৪টি আপত্তি কেসের রায় তার অনুকূলে থাকা সত্বেও রায়ের কপি সরবরাহ না করে নতুনভাবে রায় প্রদানের জন্য তার নিকট থেকে দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা উৎকোচ দাবী করেন।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে স্থানীয় ভূক্তভোগী জনগণ গণশুনানীতে আরও অনেক অভিযোগ উপস্থাপন করেন। অভিযুক্ত কর্মকর্তা উপস্থাপনকৃত অভিযোগের সঠিক জবাব দিতে পারন নি।

হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ, হরিপুর পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগ, উপজেলা ভূমি অফিস, সাব-রেজিষ্ট্রী অফিস, প্রকৌশল অফিস, সমবায় অফিস। এসকল অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম, ঘুষ দূর্নীতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ উপস্থাপন করেন স্থানীয় ভূক্তভোগী জনসাধারণ।

প্রধান অতিথি মাননীয় কমিশনার (তদন্ত) এ.এফ.এম আমিনুল ইসলাম ভূক্তভোগী জনগণের অভিযোগ শোনেন এবং সংশ্লিষ্ট অফিসের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের সততার সহিত জনগণের অধিকার অনুযায়ী সেবা প্রদানের জন্য কঠোরভাবে নির্দেশনা প্রদান করেন। তিনি আরও বলেন, টি.আর, কাবিখার আওতায় যেসকল প্রকল্প নেওয়া হয় সেগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য নির্দেশনা দেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য