আমন রোপণে ব্যস্ত দিনাজপুরের চাষীরাদিনাজপুর সংবাদাতাঃ বৃষ্টি পেয়ে পুরোদমে আমন রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছে দিনাজপুরের কৃষকেরা। দিন রাত হাল চাষ, বীজ তোলা ও রোপণের কাজ করে যাচ্ছে তারা। এখন যেন তাদের দম ফেলার সময় নেই।

আষাঢ়ের শুরু থেকেই বৃষ্টির পানে তাকিয়ে ছিল এখানকার কৃষকরা। কারণ বৃষ্টির গতিপ্রকৃতি দেখে বোঝার উপায় ছিল না যে আষাঢ় চলছে।

আমন মৌসুম শুরু হলেও বৃষ্টির অভাবে মাঠে নামতে পারছিল না কৃষকরা। আষাঢ মাসে ফসলের উপযোগি বৃষ্টিপাত না হওয়ায় মাঠে চারা লাগান সম্ভব হচ্ছিল না।

এবছর আষাঢ়ের বিদায় নিলে শ্রাবন মাসে দেখা মিলেছে ভারী বর্ষণের। এতে স্বস্তি ফিরে এসেছে কৃষকের মাঝে। এখন পুরোদমে আমন রোপনে মাঠে নেমে পড়েছে এই অঞ্চলের কৃষকরা।

দিনাজপুর জেলা কৃষি অফিস জানায়, চলতি বছরে বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টিপাত দেরিতে হলেও আমন আবাদে নেমে পড়েছেন কৃষকরা। এ কারনে ধানের ক্ষতি, উৎপাদনে এবং দাম কোন প্রভাব পড়বেনা।

কৃষকরা জানান, ‘ইরিত সাড়ে তিন বিঘা জমির ধান শ্যাষ হই গেইছে, ত্রিশ হাজার টাকা নাই, ব্লাস্ট রোগ হামাক খায়া ফেলাইল’ কষ্ট করি হইলেও আমন লাগাইছি। আশা করছি লাভ হবি।’

দু’দিনের বৃষ্টির পর দিনাজপুর জেলার চারদিকে চলছে আমন আবাদের ধুম। পানিতে টইটুম্বুর জমিতে উৎসব মুখর পরিবেশে চলছে আমন চারা রোপণের কাজ। দেখা মিলছে দল বেঁধে চারা লাগানোর চিত্রও।

আজ পর্যন্ত ধান লাগানোর জন্য পর্যাপ্ত বৃষ্টি হয়েছে দিনাজপুরে। জমিতে আটকা রয়েছে যথেষ্ট পানি। যার ফলে চারা লাগাতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্য পাচ্ছে চাষীরা।

এবারও দিনাজপুরের চাষীদের মাঝে অধিক ফলনের আশায় গুটি স্বর্ণা ধান, সুমন স্বর্ণ ধান, রঞ্জিত ধানের চারা লাগানো শুরু করেছে। কাটারিভোগ ধান লাগানোর জন্যও মাঠের প্রস্তুতি চলছে।

তবে কাটারি ভোগ ধান লাগানোর জন্য তাদের আরও কিছু দিন আপেক্ষা করতে হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য