মিসরে ৭১৯ বন্দিকে মুক্তি দিলেন সিসিমিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি দেশটির কারাগারে থাকা ৭১৯ জন বন্দিকে ক্ষমা প্রদান করেছেন। তার নির্দেশের পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই বন্দিদের মুক্তি দিয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটর এখবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, মিসরের ১৯৫২ সালের বিপ্লবের ৬৬তম বার্ষিকী উপলক্ষে এসব বন্দিদের ক্ষমা করেন সিসি। মুক্তি পাওয়া ৭১৯ বন্দির মধ্যে ২০২ জনকে পূর্ণাঙ্গ ক্ষমা এবং ৫১৭ জনকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

এর আগে ৩৩২ জন বন্দিকে ক্ষমা করেছিলেন মিসরের প্রেসিডেন্ট। ‘অবৈধ বিক্ষোভে’ অংশ নেওয়া এসব অ্যাক্টিভিস্টরা কয়েক বছর ধরে কারাগারে ছিলেন।

২০১৬ সালে আল-সিসি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দেশটির বিক্ষোভবিরোধী আইন সংশোধন এবং তার শাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভকারী তরুণদের কারামুক্তি দেওয়ার।

২০১২ সালের ৩০ জুন মিসরের ইতিহাসের প্রথম নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন মুসলিম ব্রাদারহুড নেতা মোহাম্মদ মুরসি। এর এক বছরের মাথায় ২০১৩ সালের ৩ জুলাই সেনা অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মুরসিকে সরিয়ে ক্ষমতা দখল করেন সেনাপ্রধান জেনারেল সিসি। প্রতিবাদে মুরসি সমর্থকরা রাস্তায় নামলে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হন ব্রাদারহুডের প্রায় হাজারখানেক নেতাকর্মী।

অভ্যুত্থানে সমর্থন দেয় ইসরায়েল, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখলের পর ব্রাদারহুডকে নিষিদ্ধ করা হয়। মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় দলটির প্রায় হাজারখানেক নেতাকর্মীকে। গ্রেফতার করা হয় কয়েক হাজার মুরসি সমর্থককে। কারাগারে পাঠানো হয় মোহাম্মদ মুরসিকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য