দিল্লিতে ৮দিনের অনাহারে মৃত্যু তিন বোনেরভারতের রাজধানী দিল্লিতে আট দিন ধরে না খেতে পাওয়া তিন বোনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার সকালে দুই, চার ও আট বছর বয়সী ওই তিন শিশুকে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

প্রাথমিক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর ময়নাতদন্তেও শিশু তিনটির মৃত্যু অনাহারে হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসকরা।

এনডিটিভি বলছে, টানা আটদিন কিছু না খেতে পারায় সোমবার রাতেই চূড়ান্তভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছিল তিন বোন। পরদিন সকালে মা তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

শিশুদের মৃত্যু কীভাবে হয়েছে, পুলিশের এমন জিজ্ঞাসাবাদের উত্তরে শোকার্ত নারীর মুখেও ছিল খাবারের আকুতি।

“খাবার দিন আমাকে,” প্রায় অচৈতন্য অবস্থায় বিড়বিড় করে বলছিলেন মৃত তিন বোনের এ জননী।

চিকিৎসকরা বলছেন, এমন ঘটনার মুখোমুখি হতে হবে তা তাদের দূরতম কল্পনাতেও ছিল না।

“তাদের শরীরে চর্বির কোনো অস্তিত্বই পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে তাদের পাকস্থলী যে একদমই খালি ছিল তা দেখা গেছে। এটা চরম অপুষ্টির নিদর্শন,” বলেন লাল বাহাদুর শাস্ত্রী হাসপাতালের মেডিকেল সুপারিনটেন্ডেন্ট অমিত সাক্সেনা।

“সরকারি হাসপাতালে ১৫ বছরের ক্যারিয়ারে কখনোই এমন কিছু দেখিনি,” বলেছেন অন্য এক চিকিৎসকও।

খোদ রাজধানীতেই অনাহারে শিশু মৃত্যুর এ ঘটনা এশিয়ার অন্যতম শীর্ষ অর্থনীতির দেশ ভারতকে স্তম্ভিত করে দিয়েছে। দেশটির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আয়ের শহর দিল্লিতেই এ ঘটনা নিয়ে চলছে চরম সমালোচনাও।

পাঁচ সদস্যের বাঙালি পরিবারটি শনিবারই পূর্ব দিল্লির মান্ডাওয়ালির একটি বাসায় ওঠে বলে প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন। উপার্জনের একমাত্র অবলম্বন রিকশা চুরি যাওয়ার পর শিশুদের বাবা পুরো পরিবার নিয়ে বন্ধুর বাসায় উঠে সেদিনই কাজের সন্ধানে বের হয়েছিলেন। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ নেই বলেও প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে এনডিটিভি।

দিল্লি পুলিশ বলছে, মৃত তিন শিশুর মা-ও ‘মানসিকভাবে অস্থির’।

তিনদিন ধরে পরিবারটি যে বাসায় ছিল সেখানে অনুসন্ধান চালিয়ে কিছু ওষুধের বোতল, ডায়রিয়ার ওষুধ ও সামান্যকিছু জিনিসের অস্তিত্ব পাওয়ার কথা জানিয়েছে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

মৃত তিন বোনের মধ্যে ছোট দুজন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিল জানা গেলেও স্কুলগামী বড়বোন কি করে অসুস্থ হয়েছিল তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। দিল্লির স্কুলগুলোতে দুপুরে খাবার দেওয়ার নিয়ম থাকলেও আট বছর বয়সী শিশুটি কেন অনাহারে ছিল তাও জানা যায়নি।

ঘটনার পরপরই বিজেপি ও কংগ্রেসের স্থানীয় নেতারা মৃত তিন শিশুর মায়ের সঙ্গে দেখা করে ঘটনার জন্য দিল্লিতে ক্ষমতাসীন আম আদমি পার্টিকে দায় দিয়েছেন।

“এটা অবশ্যই লজ্জাজনক, আমি এ নিয়ে রাজনীতি করতেও চাই না। কেন্দ্র সবসময়ই অতিরিক্ত খাদ্য পাঠাচ্ছে, দিল্লির সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে তা নাগরিকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া,” বলেছেন বিজেপির দিল্লিপ্রধান মনোজ তিওয়ারি।

কংগ্রেসের অজয় মাকেনও এ ঘটনার তীব্র সমালোচনা করে বলেছেন, “তাদের কাহিনী শোনা খুবই দুঃখজনক। এটি সরকার ও ব্যবস্থাপনার ব্যর্থতা।”

আম আদমি পার্টি বলছে, নাগরিকদের দোরগোড়ায় রেশনসহ নানা ধরনের সেবা পৌছে দেওয়ার উদ্যোগ কেন্দ্রের কারণে ব্যর্থ হওয়ায় অনাহারে শিশুমৃত্যুর জন্য বিজেপি-ই পরোক্ষভাবে দায়ী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য