কানাডার টরন্টো শহরের গ্রিকটাউন এলাকার রাস্তায় বেপরোয়া গুলিবর্ষণে দুই জন নিহত ও ১৩ জন আহতের ঘটনায় সন্দেহভাজন বন্দুকধারী ‘মানসিকভাবে অসুস্থ ছিলেন’ বলে দাবি করেছে তার পরিবার।

ড্যানফোর্থ ও লেগান অ্যাভিনিউতে গোলাগুলির ওই ঘটনায় ১০ বছর বয়সী এক শিশু ও ১৮ বছর বয়সী এক তরুণীর মৃত্যু হয়। পুলিশের সঙ্গে গুলি বিনিময়ের পর বন্দুকধারী ফয়সাল হুসেইনের মৃতদেহও পাওয়া যায়।

২৯ বছর বয়সী ফয়সাল টরন্টোর বাসিন্দা বলে কানাডার স্বতন্ত্র বিশেষ তদন্ত সংস্থা এসআইইউ-র বরাত দিয়ে জানিয়েছে রয়টার্স।

কী কারণে এ গুলির ঘটনা, সে সম্বন্ধে অগ্রিম কিছু বলতে রাজি হননি টরন্টোর পুলিশপ্রধান মার্ক সন্ডার্স।

“কেন এটি ঘটেছে তা বুঝতে পারছি না। কোনো কিছু বলার জন্যও এটি খুব্ই কম সময়,” সোমবার সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এমনটাই বলেছেন সন্ডার্স।

পরে এক বিবৃতিতে ফয়সালের পরিবারের সদস্যরা গুলির ঘটনায় ‘মর্মাহত’ হওয়ার কথা জানান।

২৯ বছর বয়সী এ যুবক সারাজীবন ধরেই ‘মনোবিকার ও বিষন্নতার বিরুদ্ধে লড়ছিলেন’ বলেও দাবি তাদের।

“কাণ্ডজ্ঞানহীন সংঘর্ষ ও প্রাণ সংহারের জন্য আমাদের সন্তান দায়ী, এমন ধারণাতীত খবরে আমরা খুবই মর্মাহত। সারা জীবন ধরে তার লড়াই ও কষ্টে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিলেও তার এমন ভয়াবহ ও করুণ পরিণতি হবে, কখনো ভাবিনি আমরা,” বিবৃতিতে জানায় ফয়সালের পরিবার।

পুলিশ গ্রিকটাউনের ঘটনায় নিহতদের পরিচয় প্রকাশ না করলেও স্থানীয় এক রাজনীতিক ১৮ বছর বয়সী নিহত তরুণীর নাম রিজ ফ্যালন বলে নিশ্চিত করেছেন।

হাই স্কুল শেষে রিজ নার্সিং নিয়ে পড়াশোনার পরিকল্পনা করছিল বলেও জানিয়েছেন নাথানিয়েল এরস্কাইন-স্মিথ।

রোববার রাতে গ্রিকটাউনের ড্যানফোর্থ ও লোগান এভিনিউয়ে সংঘটিত ওই গুলির ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে রিজের মৃত্যু হয়। সোমবার ভোরে দশ বছর বয়সী শিশুটির মৃত্যুর খবর আসে। তার পরিচয় জানা যায়নি।

সিবিসি অনলাইন এক প্রত্যক্ষদর্শীর তোলা একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে, যেখানে এক ব্যক্তিকে ফুটপাত দিয়ে হেঁটে আসতে আসতেই হাতের পিস্তল উঁচিয়ে গুলি ছুড়তে দেখা যায়।

জোডি স্টেইনহাওয়ার নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী গোলাগুলির ঘটনার সময় পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ড্যানফোর্থের একটি রেস্তোরাঁয় ছিলেন বলেও ওই সংবাদমাধ্যমটিকে জানিয়েছেন।

জোড়ি বলেন, হঠাৎ করেই তারা ১০ থেকে ১৫টি বিকট শব্দ পান। প্রথমে তাদের মনে হয়েছিল, বোধহয় বাজি ফোটানো হচ্ছে। দৌড়ে রেস্তোরাঁর পেছনে চলে যাওয়ার সময় তারা লোকজনের চিৎকার শুনতে পান।

কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে তাদের সঙ্গেও হামলাকারীর গুলি বিনিময় হয়। পরে কাছের একটি রাস্তায় সন্দেহভাজন হামলাকারীর গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ পাওয়া যায় বলে জানান টরন্টোর পুলিশ প্রধান মার্ক সন্ডার্স।

মঙ্গলবার ফয়সালের মৃতদেহের ময়নাতদন্ত হবে বলে জানিয়েছেন এসআইইউ-র মুখপাত্র মনিকা হুডন।

টরন্টোর মেয়র জন টোরি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, আগ্নেয়াস্ত্র সহজলভ্য হওয়াই এ সমস্যার মূল কারণ বলে তিনি মনে করেন।

সাম্প্রতিক সময়ে টরন্টোতে অস্ত্রবাজি বেড়ে যাওয়ায় গত সপ্তাহে পুলিশের পক্ষ থেকে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়। যেসব এলাকায় এসব ঘটনা বেশি ঘটছে, সেখানে সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৩টা পর্যন্ত পালা করে টহল দেওয়ার জন্য ২০০ পুলিশ সদস্যকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

গ্রিকটাউনের ঘটনায় হতাহতদের প্রতিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য