আটোয়ারীতে আশ্রায়ন প্রকল্প-২ পরিদর্শনমোঃ ইউসুফ আলী, আটোয়ারী (পঞ্চগড়) থেকেঃ জমি আছে যার, ঘর নাই তার আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ২৬৭টি ঘরের নির্মান কাজ চলছে। গতকাল সোমবার (২৩ জুলাই) দুপুরে নির্মানাধীন এসব ঘরের কাজ সরেজমিনে পরিদর্শন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানার নেতৃত্বে পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ ইউসুফ আলী, আটোয়ারী প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক জিল্লুর হোসেন সরকার। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, এ প্রকল্পটি সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে দেয়া হয়েছে।

এ উপজেলায় যাদের ঘর তোলার মত জমি আছে কিন্তু অর্থাভাবে ঘর নির্মাণ করা সম্ভব হচ্ছেনা, শুধু তাদের জন্যই এ প্রকল্প।

পরিদর্শন করতে গিয়ে উপকারভোগী ছোটদাপ গ্রামের মনিরুল ইসলাম ইউএনও কে অভিযোগ করে বলেন, গত রবিবার ৬/৭ জন সাংবাদিক মটরসাইকেল নিযে আপনার দেয়া সরকারী ঘর পরিদর্শন করতে এসেছিল। তারা আমার বাড়ির কোদাল দিয়ে ঘরের একটি পিলারের গোড়া ভেঙ্গে দেয় এবং আমার স্ত্রীকে মিথ্যা তথ্য শিখিয়ে দিয়ে তার জবানবন্দী মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করেন।

এব্যাপারে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, আটোয়ারীতে ইদানিং কতিপয় হলুদ সাংবাদিকের আনাগোনা দেখছি। এরা বিভিন্ন ধান্দাবাজি করে মানুষকে হয়রানী করে আসছে। প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষের এব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ।

তা না হলে অপসাংবাদিকদের জন্য উপজেলার প্রকৃত সাংবাদিকদের মান সহ মহান সাংবাদিকতা পেশা মানুষের কাছে ম্লান হবে। তিনি আরো বলেন, আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় নির্মানাধীন ঘরের খুটি ভেঙ্গে ইউএনও’র বিরুদ্ধে অপ-প্রচারে লিপ্ত ওই সকল অপ-সাংবাদিকরা সরকারী কাজে বাঁধা প্রদান করেছে। আমি বিভাগীয় ভাবে বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অবগত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্তা গ্রহণ করব।

এদিকে পরিদর্শন কালে উপকারভোগীদের মাঝে শুকনো খাবারের প্যাকেট ( চাল, ডাল, তেল, চিনি, লবন, মোমবাতি ও দিয়াশলাই) প্রদান করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য