লিহাজ উদ্দিন মানিক; বোদা (পঞ্চগড়) থেকেঃ পঞ্চগড়ের বোদায় ক্রয়কৃত জমি রেজিষ্ট্রি না দিয়ে ফের তাকে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ ও সরজমিনে দেখা যায় উপজেলার সাকোয়া ইউনিয়নের নুরনগর প্রধানপাড়া গ্রামের আব্দুর জব্বারের পুত্র নবিউল ইসলাম পাচপীর ইউনিয়নের বাকপুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের খতিবর কসাই এর ছেলে লিটন কসাই এর কাজ থেকে সোয়া আট শতক জমি ক্রয় করেন।

নবিউল ঐ ক্রয়কৃত জমিতে বসতবাড়ী উত্তোলন করিয়া বসবাস করেছেন দীর্ঘ ৯ বছর ধরে। জমি ক্রয় করার কিছু দিন পর নবিউল ক্রয়কৃত জমিটি রেজিষ্ট্রি চাইলে লিটল ও তার বাবা খতিবর জমি রেজিষ্ট্রি দিতে টালবাহান শুরু করে। তখন ক্রয়কত জমির মালিক নবিউল স্থানীয় গ্রাম্য শালিস করেন।

গ্রাম শালিসে তারা জমিটি রেজিষ্ট্রি দিতে রাজি হয়। আবার কিছুদিন পর তাদের কাছে জমিটি রেজিষ্ট্রি চাইলে তাকে মারপিঠ করে বিভিন্ন ধরণের হুমকি প্রদর্শন করে তার ক্রয়কৃত জমি থেকে বসতবাড়ী তুলে ফেলার পায়তারা করেন।

তখন নবিউল সাকোয়া ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ প্রদান করলে তারা ইউনিয়ন পরিষদে আপোষ মিমাংসায় অঙ্গীকার নামা প্রদান করেন অল্প কয়েক দিনের মধ্যে জমিটি রেজিষ্ট্রি করে দেওয়ার।

কিন্তু পরিষদের অঙ্গীকার অমান্য করে তার পুনরায় জমিটি রেজিষ্ট্রি দিতে অস্বীকিত জানান। সেই সাথে লিটন সহ তার গং বাহিনী সব সময় নবিউল ইসলামের বসত বাড়ীতে হামলা চালায়।

নবিউল এ বিষয়ে গত ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারী তারিখের মারপিটের অভিযোগ পঞ্চগড় কোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন।

সেই মামলায় তারা ৪টি তারিখে কোন জবাব না দিয়ে ৫ তারিখের মাথায় একটি মিথ্যা জবাব কোটে দাখিল করেন। সেই দিন বিচারক না বসায় বাদী কোন খবর পাননি।

এ ব্যাপারে নবিউল তার সঠিক আইনানুগ ব্যবস্থা পেটে প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য