ডিমলায় বখাটের মারপিটে কলেজ ছাত্রী হাসপাতালেনীলফামারীর ডিমলায় প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় বখাটের মারপিটে ছামিয়া আক্তার সীমা নামে এক কলেজ ছাত্রী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। সে গয়াবাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম খড়িবাড়ী গ্রামের আব্দুর রহিমের কন্যা ও গয়াখড়িবাড়ী মহিলা কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী।

বোরবার সকালে উপজেলার গয়াবাড়ীর ইউনিয়নের মতির বাজার এলাকায় ঘটনাটি ঘটে । এ সময় কলেজ ছাত্রীকে এলাকায় লোকজন উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এলাকাবাসী ধাওয়া করলে বখাটে পালিয়ে যায়।

জানা যায়, গয়াবাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম খড়িবাড়ী গ্রামের আমজাদ হোসেনের বখাটে পুত্র শামীম ওরফে বাবু (২১) দীর্ঘদিন থেকে সীমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

এ বিষয়টি নিযে একাধিকবার পারিবারিক ভাবে আপোষ মিমাংশা হয়। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় বোরবার সকালে ছাত্রীটি কলেজ যাওয়ার পথে মতির বাজারের পশ্চিম পাশ্বে আজিজার রহমানের বাড়ী সংলগ্ন রাস্তায় পথরোধ করে।

এ সময় শামীম ওরফে বাবু ছাত্রীটিকে চড় থাপ্পর মারে। ছাত্রীর আত্বচিকিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে বখাটে শামিম পালিযে যায়।

পালিয়ে যাওয়ার সময় সীমার গায়ে এসিড দেয়ার হুমকি দেন মর্মে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছামিনা আক্তার সীমা অভিযোগ করে বলেন।

ছাত্রীটির মা জাহানারা বেগম বলেন, দীর্ঘদিন থেকে আমার মেয়েকে বখাটে শামীম উত্তাপ্ত করে আসছিল। বিষয়টি তার পরিবারকে অবগত করা হলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনাটি ঘটিয়েছে।

এ রিপাট লেখা পর্যন্ত থানায় অভিযোগের প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য