কুড়িগ্রাম-৩ উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে কর্মী সমর্থকদের মারধর ও নির্বাচনী প্রতীক পোড়ানোর ঘটনায় জাপা নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতারা। এ ঘটনায় উভয় দলের নেতা-কর্মীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। গ্রেপ্তার আতংকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন জাপা নেতাকর্মীরা।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের কর্মী শাহ্ আলমকে জাপার লাঙ্গল মার্কার পক্ষে নির্বাচনী কাজ করার জন্য চাপদিলে তিনি তা প্রত্যাক্ষান করায় ১৩ জুলাই গভীর রাতে জাপা নেতা-কর্মীরা তাকে মারধর করেন। এ অভিযোগে ওই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমীন বাদী হয়ে উপজেলা জাপার প্রচার সম্পাদক ও হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বিএম আবুল হোসেনসহ ৫জনের বিরুদ্ধে ১৪ জুলাই রাতে মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে, বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে ১৩ জুলাই গভীর রাতে আঠারো পাইকা গ্রামের ডাক্তার পাড়া ও দাসের খামার রাস্তার মোড়ে বাঁশের তৈরি নৌকা প্রতিকৃতি এবং বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে অগ্নিসংযোগের অভিযোগে ওই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ক্ষমতাসীন দলের সভাপতি আমিনুল ইসলাম মুকুল বাদী হয়ে ইউনিয়ন জাপা নেতা আব্দুল খালেকসহ ১০জন নামীয় ও অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের নামে ১৪ জুলাই রাতে মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় উভয় দলের নেতা-কর্মীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। মামলার পর থেকে ওই দুই ইউনিয়নের জাপা নেতা কর্মীরা গ্রেপ্তার আতংকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

উপজেলা জাপার প্রচার সম্পাদক ও হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বিএম আবুল হোসেন মোবাইল ফোনে জানান, শাহ্ আলমকে মারধরে ঘটনাটি পুরোপুরি মিথ্যা এবং সাজানো। জাপা প্রার্থী ডাঃ আক্কাছ আলীর ব্যক্তি জনপ্রিয়তা ও লাঙ্গলের জনপ্রিয়তায় দিশেহারা হয়ে আওয়ামীলীগের নেতারা মিথ্যা মামলার আশ্রয় নিয়ে জাপা নেতাকর্মীদের হয়রানী করছেন।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী অধ্যাপক ডা. আক্কাছ আলী সরকার বলেন, জাপার নেতা-কর্মীরা শান্তিপ্রিয়। বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে আমার বাড়ি। সেখানে নৌকা মার্কা পোড়ানোর মত কোন ঘটনা জাপা নেতা-কর্মীরা ঘটায়নি। রাতের আধাঁরে তারা নিজেরাই নৌকা পুড়িয়ে জাপা নেতা-কর্মীদের দোষারোপ করছেন। মামলা দিয়ে লাঙ্গলের জনপ্রিয়তা কমানো যাবেনা। সুষ্ঠ নির্বাচন নিয়ে আশংকা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আশা করছি নির্বাচন সুষ্ঠ হবে।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোস্তাফিজার রহমান জানান, হাতিয়া ও বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের ঘটনায় অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য