মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাও: ঠাকুরগাঁয়ের রাণীশংকৈলে একটি বিদেশী পিস্তলসহ দুই ছিনতাইকারীকে আটকের বিষয় নিয়ে আজ মঙ্গলবার সকালে ঠাকুরগাও পুলিশ সুপার নিজ কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার ফারহাত আহম্মেদ জানান,জেলার রাণীশংকৈলে উপজেলার মহারাজা হাট শাখা গ্রামীণ ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক হারুন অর রশিদ ও অফিস পিয়ন মুকুলসহ নেকমরদ সোনালী ব্যাংক থেকে ৬ লাখ টাকা উত্তোলন করে মোটরসাইকেল যোগে অফিস যাওয়ার পথে দুর্লভপুর নামক স্থানে পিছন থেকে আসা দুই ছিনতাইকারী মোটরসাইকেলের গতি রোধ করে।এসময় ছিনতাইকারীরা ফাঁকা গুলি বর্ষন করে টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

এ সময় গ্রামীণ ব্যাংক ম্যানেজার ও পিয়ন চিৎকার করতে থাকেন।ছিনতাইয়ের বিষয়টি স্থানীয়রা থানা পুলিশকে খবর দেয়। থানা পুলিশ খবর পেয়ে দ্রæত জনতার সহায়তায় বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেন।

মহারাজা নামক স্থানে ছিনতাইকারীরা জনতা ও পুলিশ রাস্তায় গাছের ব্যারিকেড দেখে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রন হারিয়ে থেকে রাস্তায় ছিটকে পড়ে।

এসময় জনতা আটক ছিনতাইকারীদের ধরে পুলিশের নিকট সোপর্দ করে।
আটককৃতরা হলো হরিপুর উপজেলার লহুচাঁদ গ্রামের বদরুল ইসলামের ছেলে মো.আবু সাইদ(২৮) একই গ্রামের আমিনউদ্দীনের ছেলে আসাদুজ্জামান ওরফে লিটন(৩১)।

এ সময় আটককৃতদের শরীর তল্লাশী করে ছিনতাইকৃত ছয় লক্ষ টাকা ও একটি বিদেশী ৭.৬৫ এমএই মডেলের পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, তাজা গুলি দুইটি ও গুলির খোসা একটি উদ্ধার করেন।সেই সংগে তাদে ব্যবহার কৃত এ্যাপাচি মোটরসাইকেল আটক করা হয় বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান পুলিশ সুপার।

এ সময় আটককৃতদের দেওয়া তথ্যমতে রানীশংকৈল উপজেলার ভবানন্দপুর টাওয়ারপাড়ার আব্দুল কাউয়ুমের ছেলে তান্নু আনসারী (২১)কে আটক করে পুলিশ।সে এই ছিনতাইকারীর সংগে সরাসরি জড়িত ছিল বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য