ভারতের মহারাষ্ট্রে শিশু অপহরণকারী সন্দেহে জনতার গণপিটুনিতে আবারো পাঁচজন নিহত হয়েছে। পুলিশ এর সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ২৩ জনকে গ্রেফতার করেছে। রবিবার এ ঘটনা ঘটে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়, সম্প্রতি ভারতে শিশু অপহরণ, চুরি বা যৌন হয়রানির গুজব ছড়িয়ে এই পর্যন্ত ২৫ জনেরও বেশি লোককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

রবিবার মহারাষ্ট্রের ধূলে জেলার আদিবাসী অধ্যুষিত রাইনপাডা গ্রামে স্থানীয়রা একটি শিশুর সঙ্গে আটজনকে কথা বলতে দেখলে তাদের মধ্যে পাঁচজনকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে।

ধূলে থানার পুলিশ প্রধান এম রামকুমার জানান, রবিবার একটি বাজারে এক শিশুর সঙ্গে কয়েকজনকে কথা বলতে দেখলে স্থানীয়দের সাথে তাদের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এরপর তাদেরকে অপহরণকারী সন্দেহে স্থানীয়রা গণপিটুনি শুরু করে।

এর মধ্যে তিনজন পালিয়ে যায় এবং অপর পাঁচজনকে টেনে স্থানীয় কাউন্সিল কার্যালয়ে নিয়ে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

পুলিশ জানায়, ভিডিও ফুটেজ দেখে অভিযুক্তদের চিহ্নিত করা হয়েছে এবং অপর বারো জন পলাতক রয়েছে।

নিহতরা একই রাজ্যের সোলাপুর জেলার বাসিন্দা।

গত বছর মে মাসে ঝাড়খন্ডের পূর্বাঞ্চলে হোয়াটসঅ্যাপে শিশু অপহরণের গুজব ছড়িয়ে ছয় জনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এরপর থেকে পুরো দেশজুড়ে এমন ঘটনার সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাসস।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য