যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছানোর লক্ষ্যে রাশিয়ার মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে ফের আলোচনায় বসেছে সিরীয় বিদ্রোহীরা।

টপ ৪ এর ক্যাপশন: যুক্তরাষ্ট্রের খরা পীড়িত দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের এলাকাগুলো পৃথক ১০টি দাবানলে পুড়ছে। ছবি: রয়টার্স

জর্ডানের মধ্যস্থতায় সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত অংশে দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে বলে আসাদবিরোধী গোষ্ঠীগুলোর এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সরকারি বাহিনীর লাগাতার বোমাবর্ষণে বিদ্রোহীদের অনেকগুলো ঘাঁটির পতনের পর শনিবার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একগুচ্ছ গ্রাম ও শহরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় আসাদবাহিনী।

ওইদিনই ফ্রি সিরিয়ান আর্মির (এফএসএ) প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনায় রুশ কর্মকর্তারা বিদ্রোহীদের সম্পূর্ণ আত্মসমর্পণ দাবি করলে বুশরা আল শাম শহরে চলমান শান্তি আলোচনা ভেস্তে যায়।

জর্ডানের মধ্যস্থতা রোববার এফএসএ প্রতিনিধিরা রাশিয়ান কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফের আলোচনায় বসেন বলে জানান বিদ্রোহীদের মুখপাত্র ইব্রাহিম আল জাবাউয়ি।

“জর্ডানের পৃষ্ঠপোষকতায় বিদ্রোহী ও রাশিয়ান পক্ষের মধ্যে সকালে ফের আলোচনা শুরু হয়েছে,” রয়টার্সকে এমনটাই বলেছেন জাবাউয়ি।

নিজেদের উত্তর সীমান্তে ছড়িয়ে পড়া সহিংসতায় উদ্বিগ্ন জর্ডান অনেক দিন ধরেই দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধ বন্ধে একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সাফাদি বলেছেন, যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছাতে তার দেশ লড়াইয়ে অংশ নেওয়া সব পক্ষের সঙ্গে নিবিড় আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে, যেন উদ্বাস্তু নাগরিকদের ঢল সামলানো যায়।

গত মাস থেকে দক্ষিণ¬-পশ্চিমাঞ্চলের বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় অভিযান শুরু করেছে সিরীয় বাহিনী। অভিযান শুরু হওয়ার পর ওই এলাকার লাখ লাখ বেসামরিক বাসিন্দা প্রতিবেশী জর্ডান ও ইসরায়েলের দখলে থাকা গোলযোগপূর্ণ গোলান মালভূমির দিকে সরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য