11 21 18

বুধবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

Home - দিনাজপুর - দিনাজপুর শহর রক্ষা বাঁধের ৫৮টি স্থানে সংস্কার চলছে

দিনাজপুর শহর রক্ষা বাঁধের ৫৮টি স্থানে সংস্কার চলছে

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর শহরে ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বাধ সংস্কার ও নির্মান কাজ এখনও শেষ হয়নি। শহরের পাশে দিয়ে প্রবাহিত পূর্নভবা ও গর্ভেশ্বরী নদীর শহর রক্ষা বাঁধ দ্রুত গতিতে সংস্কারের কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। তবে এখনি বন্যা দেখা দিলে বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন জেলা প্রশাসন।

App DinajpurNews Gif

দিনাজপুর সদর ও বিরল উপজেলার মধ্য দিযে প্রবাহিত ঢেপা নদীর পার্শবর্তী চকচকা, মালঝার, ডুমুরতলিসহ বেশ কয়েকটি বাঁধের সংস্কার ও বাধ নির্মান কাজ চলছে। চলতি বর্ষাকাল সামনে রেখে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাধেঁর কাজ শুরু হলেও কবে নাগাদ শেষ হবে এ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

দিনাজপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদুল ইসলাম অভিযোগ করেন, বর্ষাকাল শুরু হয়েছে। গত বছর বন্যায় শহর রক্ষা ২টি বাধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত বাধ পুনঃ নিমৃান ও যুগোপযোগী মজবুত করে নির্মানের জন্য জেলা প্রশাসনের বৈঠকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বাস্তবায়নের নিদের্শনা দেয়া হয়। কিন্তু পানি উন্নয়ন বোর্ড ধীর গতিতে বাধ নির্মান ও সংস্কারের কাজ করায় বর্ষাকাল শুরু হয়ে গেছে। এখন তড়িঘড়ি করে ঠিকাদারের মাধ্যমে বাধ নির্মানের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বর্ষাকাল চলমান। যদি প্রবল বা ভয়াবহ বন্যা শুরু হয় তবে গতবারের তুলনায় আরও বেহাল অবস্থা দেখা দিবে শহরের মধ্যে।

পুনর্ভবা নদী সংলগ্ন বালুয়াডাঙ্গা ও চাউলিয়াপট্টির এলাকাবাসীরা বাধ নির্মান এবং সংস্কার কাজে সন্তোষ প্রকাশ করে জানান, বর্ষার আগে যেন কাজ শেষ হয়। শহর রক্ষা বাঁধসহ বিরল উপজেলার বেশ কিছু বাঁধ পুনর্নির্মান করা হলেও বাঁধ সংলগ্ন গ্রামের মানুষদের অভিযোগ এই বাঁধ স্থায়ীভাবে যেন নির্মান করা হয়। তবেই ভযাবহ বন্যা থেকে দিনাজপুর শহরে ও সদর উপজেলা এবং বিরল উপজেলার মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত থেকে রক্ষা পাবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ফইজুর রহমান বলেন, দিনাজপুরে ৭টি নদীতে ২০৮ কিলোমিটার বাধ রয়েছে। গত বছর বন্যায় ৫৮টি স্থানে বাঁধ ভেঙ্গে যায়। যার দৈর্ঘ্য প্রায় আড়াই কিলোমিটার। চলতি জুন মাসের মধ্যেই এসব বাঁধ সংস্কার শেষ করার নির্দেশ রয়েছে। কিন্তু নানা প্রতিকুলতার কারণে ঠিকাদার নির্মান কাজ শেষ করতে পারেনি। খুব শিঘ্রই নির্মান কাজ শেষ করতে জনবল বৃদ্ধি করে কাজ চলছে।

পানি উন্নয়নের বোর্ডের সূত্রটি জানায়, পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের কাছে বাঁধ নির্মান ও উন্নয়ন খাত থেকে ৯ কোটি ৭২ লক্ষ টাকা বরাদ্ব চাওয়া হয়। আমরা পেয়েছি ৬৩ লাখ টাকা। এই টাকা দিয়ে বাধ সংস্কারের কাজ চলছে।

সূত্রটি জানায়, দিনাজপুর শহর রক্ষা প্রকল্প ও পুর্নবাসনের জন্য ২ শ ৭১ কোটি টাকা চলতি অর্থ বছরে একনেকে পাশ হয়েছে। আগামী অর্থ বছরে শহর রক্ষা বাধ নির্মান কাজ সম্পন্ন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য