হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারা সেনডারসকে নিজের রেস্তোরাঁ থেকে বের করে দিয়েছিলেন স্টেফিনিয়া উইলকিন্স। ঘটনার সাত দিনের মাথায় খেসারত দিতে হল তার। পদত্যাগ করতে হলো ভার্জিনিয়ার ব্যবসায়ী গোষ্ঠী থেকে।

ভার্জিনিয়া ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর প্রেসিডেন্ট এলিজাবেথ ব্রানার বলেন, হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র তো বলে কথা নয়, কারো সঙ্গে এমন ব্যবহার মেনে নেওয়া যায় না।

ভার্জিনিয়ার ‘রেড হর্ণ’ রেস্তারাঁয় গত মঙ্গলবার স্বপরিবারে রেস্তারাঁয় আসেন সারা সেনডারস। স্টেফিনিয়া তাদের কোনো ২ মিনিটের মধ্যে বের হয়ে যেতে বলেন। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, মার্কিন সরকার অমানবিক ও বর্বর। তাই মার্কিন সরকারের কোন প্রতিনিধিকে তিনি রেস্তারাঁয় খাওয়াবেন না।

তবে এমন ঘটনায় একদম মেজাজ হারাননি সারা। টুইটে তিনি জানান, ট্রাম্প সরকারের প্রতিনিধি হওয়ার রেস্তারাঁর মালিক তাকে উঠে যেতে বলেন। মোটেই বিচলিত হননি তিনি। হাসিমুখে বের হয়ে আসেন রেস্তারাঁ থেকে।

রেস্তারার মালিক স্টেফিনিয়া বলেন, ট্রাম্প সরকারের আমার কাছে কখনোই ভাল মনে হয়নি। তাছাড়া ট্রাম্প সরকার সমকামীদের কোথাও কাজ দিচ্ছে না।

তিনি আরো বলেন, তার রেস্তারাঁয় ট্রাম্পের শিশু উদ্বাস্তু নীতি সমর্থন করছিলেন সারা। বাধ্য হয়ে তিনি তাকে রেস্তারাঁ থেকে যেতে বলেন। একইসঙ্গে সারাকে তিনি বলেন, আমার রেস্তারাঁয় সৎ, ভালো মানুষেরা আসতে পারবেন। আমার রেস্তােরাঁর একটা নিজস্বতা আছে।

ঘটনার দিন ট্রাম্প প্রশাসন কিছু বলেননি। ঠিকই ৭ দিনের মাথায় রেস্তারাঁর মালিককে ব্যবসায়ী গোষ্ঠী থেকে পদত্যাগ করালেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য