ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন(ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে আসা বিষয়ক ‘ব্রেক্সিট’ বিল আইনে পরিণত করতে প্রয়োজনীয় সম্মতি দিয়েছেন ব্রিটিশ রানী এলিজাবেথ। ইতিমধ্যে বিলটিকে আইনে পরিণত করেছে দেশটির পার্লামেন্ট। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও বিবিসি’র।

খবরে বলা হয়, ক্ষমতাসীন থেরেসা মে সরকারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিল হিসেবে পরিচিত ব্রেক্সিট। বহুদিন ধরে এই বিল নিয়ে দেশজুড়ে চলছে নানা বিতর্ক। মঙ্গলবার বিলটি আইনি পরিণত করার সম্মতি দিয়ে সেসব বিতর্কের সমাপ্তি টানলেন রানী। এই বিলের মাধ্যমে ইইউ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বেরিয়ে আসতে পারবে যুক্তরাষ্ট্র।

নতুন আইনে ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের দিন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। হাউজ অফ কমন্সের স্পিকার জন বেরকো বলেন, গত সপ্তাহে পার্লামেন্টের উভয় কক্ষ থেকে ইইউ প্রত্যাহার বিলটি (ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন উইথড্রয়াল এক্ট ২০১৮) পাস হয়েছে। পাশাপাশি রানি এলিজাবেথ এটিকে আইনে পরিণত করার সম্মতি দিয়েছেন।

হাউজ অফ কমন্সের এক অধিবেশনে আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশ্য বেরকো বলেন, ‘রয়াল এসেন্ট এক্ট ১৯৬৭’ অনুসারে, আমি কক্ষকে এই বিষয়ে অবহিত করছি যে, মহিমান্বিত রানী ‘ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন উইথড্রয়াল এক্ট ২০১৮’ আইনে পরিণত করার ব্যাপারে চূড়ান্ত সম্মতি দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, বিলটি আইন হওয়ার আগেই আইনমন্ত্রী হিসেবে পদত্যাগ করেন ফিলিপ লি। এছাড়া, ব্রেক্সিট ইস্যুতে সরকারের কৌশল পরিবর্তনের আহবান জানান তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য