দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের টয়েলেটের প্যান ভেঙে উদ্ধার করা নবজাতকটির অবশেষে স্থায়ী ঠিকানা হয়েছে স্বপ্নের দেশ আমেরিকায়।

দিনাজপুর শহরের বাসিন্দা আমেরিকা প্রবাসী এক দম্পতি সকল আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ছেলে শিশুটিকে তাদের উত্তরাধিকারী হিসেবে গ্রহণ করেছেন। নিয়ে গেছেন স্বপ্নের দেশ আমেরিকায়। এ ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে,১১ জুন দিনাজপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসাপাতালে অবিবাহিত এক কলেজ ছাত্রী ছেলে শিশুটি’র জন্ম দেয়। পরে প্রসূতি ছাত্রী ওই সন্তানকে হত্যার জন্য টয়লেটের প্যানের মধ্যে মাথা ঢুকিয়ে দেয়।

এ সময় টয়লেটের ভেতর থেকে নবজাতকের কান্না শুনতে পেয়ে ওয়ার্ডের অন্য রোগীর স্বজনরা নার্সদের খবর দেন। খবর পেয়ে নার্স এবং ওয়ার্ড বয় ছুঁটে গিয়ে টয়লেটের প্যান ভেঙে নবজাতক কে উদ্ধার করে। সঙ্গে মাকেও সেখান থেকে উদ্ধার করে গাইনি ওয়ার্ডে ও নবজাতককে আহত অবস্থায় শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

অনাগত যে শিশুুট’র জীবনটাই ছিল অনিশ্চিত। নিশ্চিত মৃত্যু’র হাত থেকে বেঁচে গিয়ে আজ সেই শিশুর ঠিকানা হয়েছে দূর পরবাস স্বপ্নের দেশ আমেরিকায়।

দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরুপ বক্সী বাচ্চুর মধ্যস্থতায় আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. পারভেজ সোহেল রানা শিশুটিকে সকল আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আমেরিকা প্রবাসী ওই দম্পতির কোলে তুলে দেন। এ সময় হাসপাতালে সবার মাঝে সৃষ্টি হয় এক আনন্দঘন পরিবেশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য