দিনাজপুর সংবাদাতাঃ জেলা প্রশাসক ড. আবু নঈম মুহাম্মদ আবদুছ ছবুর বলেছেন, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার যাত্রা শুরু করেছে। এই অগ্রযাত্রায় প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের অগ্রণী ভুমিকা রাখতে হবে।

সর্বোচ্চ ত্যাগ, সততা ও আন্তরিকতার সঙ্গে জনগনের সেবায় আত্মনিয়োগ করাই সিভিল সার্ভিস সদস্যগণের মুল দায়িত্ব। বিশ^ায়নের এই যুগে জনসাধারনের চাহিদা ও সেবার ধরণ প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। উন্নত বাংলাদেশ গড়তে দক্ষ, যোগ্য, নিবেদিত ও জবাবদিহিমূলক সিভিল সার্ভিসের ভুমিকা অপরিহার্য। আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস-২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজেন ২৩ জুন শনিবার জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে সকাল ১০টায় র‌্যালী শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডিসি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ড. মোহাম্মদ শহীদ হোসেন চৌধুরী। “টেকসই উন্নয়নের অগ্রযাত্রার লক্ষে সরকারের রুপান্তর প্রক্রিয়া” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার দিনাজপুর’র উপ পরিচালক (উপসচিব) মোঃ ইমতিয়াজ হোসেন, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মোঃ মাসুদ রানা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ জয়নুল আবেদীন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান, সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর দিনাজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাছুম সারওয়ার, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ তৌহিদুল ইকবাল, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুর রহামান, বিআরটিএ দিনাজপুর সার্কেলের সহকারী পরিচালক উথায়ইনু চৌধুরী, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ মোরশেদ আলী খান, বিএডিসি দিনাজপুর (বীজ) উপ পরিচালক মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন, জেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল মজিদ, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শাহিনুর আলম, জেলা কারাগারের জেলার মোঃ হুমায়ুন কবীর খান, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

এর আগে সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় হতে একটি বর্ণাঢ্য শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালীতে দিনাজপুরের বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের প্রধানগণ নিজ নিজ ব্যানার নিয়ে অংশ নেয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য